ক্ষুদ্র চা চাষীদের একাধিক সমস্যা সমাধানের দাবি উঠল জলপাইগুড়ির বার্ষিক সভা থেকে

আমাদের ভারত, জলপাইগুড়ি, ২১ নভেম্বর: ক্ষুদ্র চা চাষীদের একাধিক সমস্যা সমাধানে দাবি উঠল জলপাইগুড়ি ক্ষুদ্র চা চাষী সমিতির ১৬তম বার্ষিক সাধারণ সভা থেকে। দেশ তথা উত্তরবঙ্গের সিংহভাগ চা উৎপাদন করে থাকেন ক্ষুদ্র চা চাষী। অন্যদিকে জলপাইগুড়ি চা নিলাম কেন্দ্র দীর্ঘদিন ধরে বন্ধ, দ্রুত নিলাম কেন্দ্র খোলার উদ্যোগ গ্রহণ করার আশ্বাস মিলছে টি বোর্ডের তরফে বলে দাবি ক্ষুদ্র চা চাষীদের।

রবিবার রানীনগরে ক্ষুদ্র চা চাষী সমিতির সম্মেলন হল। জলপাইগুড়ি জেলা ক্ষুদ্র চা চাষী সমিতির সম্পাদক বিজয় গোপাল চক্রবর্তী বলেন, আমাদের দাবি টি বোর্ডের ডেপুটি চেয়ারম্যানের কাছে তুলে দেওয়া হয়েছে। বিভিন্ন ক্ষেত্রে আমরা পাতার দাম পাচ্ছি না। সে ক্ষেত্রে যাতে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ করা হয় সেই দাবি করা হয়েছে। এছাড়া জলপাইগুড়ি টি অকশন কেন্দ্রটিও দ্রুত খোলার ব্যাপারে ডেপুটি চেয়ারম্যান আগ্রহ প্রকাশ করা হয়েছেন। এছাড়া রাজ্য সরকার ও কেন্দ্র সরকারের কাছে একাধিক দাবি তুলে ধরা হয়। আমরা যেহেতু কৃষক, এই কারণে কৃষাণ ক্রেডিট কার্ড সহ কৃষকদের বিভিন্ন সরকারি সুযোগ সুবিধার দাবি করা হয়েছে।”

ভবিষ্যতে চা পর্ষদের ভূমিকায় ক্ষুদ্র চা শিল্প প্রাধান্য পাবে বলে জানালেন ডেপুটি চেয়ারম্যান সৌরভ পাহাড়ি। তিনি আরও বলেন, অনেক সময় ক্ষুদ্র চা চাষিরা পাতার মূল্য পাচ্ছেন না। কারণ পাতার গুণগত মান খারাপ থাকছে। চা পাতার দাম নিয়ে যে বৈষম্য হচ্ছে সে বিষয়ে জেলাশাসকের সাথেও তিনি কথা বলবেন বলে জানান।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here