বাংলাদেশি রোগীর থেকে টাকা ছিনতাই, গ্রেফতার পুলিশের গাড়ি চালক

সৌভিক বন্দ্যোপাধ্যায়, কলকাতা, ২০ ডিসেম্বর: এ যেন সর্ষের মধ্যেই ভূত। যদিও ঘটনা প্রথমবার নয়, এর আগেও বহুবার ঘটেছে। আর যতবার ঘটেছে ততবারই কালিমালিপ্ত করেছে পুলিশের ভাবমূর্তি। ফের তোলাবাজির অভিযোগে পুলিশের গাড়ি চালককেই গ্রেফতার করলেন লালবাজারের গুন্ডাদমন শাখার গোয়েন্দারা।
গ্রেফতার করা হয় তালতলা থানায় কর্মরত ওই অভিযুক্ত পুলিশ গাড়িচালক বিশ্বনাথ বিশ্বাসকে। সে উত্তর ২৪ পরগনার গোপাল নগরের বাসিন্দা।

২১ নভেম্বর ভোররাতে ট্রেন ধরতে যাওয়ার সময়ে মৌলালির মোড়ে পুলিশ টাকা ছিনিয়ে নিয়েছে, অভিযোগ করেছিলেন মোশারফ হোসেন এবং গোলাম সাকলাইন। পুলিশ সূত্রে খবর, মোশারফ হোসেন নামে বছর ৪৮-এর ওই ব্যাক্তি বাংলাদেশ থেকে মুম্বইয়ে গিয়েছিলেন কোলন ক্যানসারের চিকিৎসা করাতে। ২০ নভেম্বর রাতে তিনি কলকাতায় ফিরে মির্জা গালিব স্ট্রিটের একটি হোটেলে উঠেছিলেন। পরের দিন অর্থাৎ ২১ নভেম্বর ভোরবেলায় তাঁর শিয়ালদহ স্টেশন থেকে গেদে যাওয়ার ট্রেন ধরার কথা ছিল। তাঁর অভিযোগে তিনি জানান, ওই দিন তাঁর আত্মীয় গোলাম সাকলাইনকে নিয়ে ট্যাক্সিতে শিয়ালদহ যাচ্ছিলেন মোশারফ। মৌলালি মোড়ের কাছে পুলিশের পোশাকে থাকা এক ব্যক্তি তাঁদের ট্যাক্সি দাঁড় করান।

এর পর তাঁদের পরিচয় জানতে চান। মোশারফের অভিযোগ, বাংলাদেশি নাগরিক শুনেই ওই পুলিশ কর্মী তাঁদের পাসপোর্ট এবং সঙ্গে থাকা ২৭ হাজার বাংলাদেশি টাকা কেড়ে নেন। অনেক অনুনয় বিনয় করার পর ওই পুলিশ কর্মী ৭ হাজার টাকা ফেরত দেন। বাকি ২০ হাজার টাকা নিয়ে নেন।

সম্প্রতি ফের কলকাতা আসার পরে ১৬ ডিসেম্বর এক বন্ধুর পরামর্শে তারা পুলিশ কমিশনারকে ই-মেল করে বিষয়টি জানান ওই দু’জন। সিসিটিভি ফুটেজ খতিয়ে দেখে অভিযোগের সত্যতা পান গোয়েন্দারা। চিহ্নিত করা হয় তালতলা থানার পুলিশের গাড়ির চালক বিশ্বনাথকে।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here