করোনা যোদ্ধাদের রুপোর মেডেল দিয়ে সম্মানিত করল পূর্ব বর্ধমান জেলা প্রশাসন

আমাদের ভারত, বর্ধমান, ১৫ আগস্ট : করোনা পরিস্থিতিতে তখন ভিন রাজ্য থেকে পরিযায়ী শ্রমিকদের ফিরিয়ে আনার কাজ শুরু হয়েছিল। প্রায় দিনই বর্ধমান স্টেশন পরিযায়ী শ্রমিকদের ভিড়ে গিজগিজ করতো। সেই সময় জীবনের ঝুঁকি নিয়ে টানা কাজ করে চলেছিলেন সিভিক ভলান্টিয়াররা। শুধু তারাই কেন বর্ধমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল, কাটোয়া, কালনা মহকুমা হাসপাতাল, জেলার বিভিন্ন হাসপাতালের চিকিৎসক, নার্স, স্বাস্থ্যকর্মী, ঝাড়ুদার, আশা কর্মী সকলেই কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে করোনা রোগীদের সুস্থ করার কাজ শুরু করেছিলেন। সেই কাজ করতে গিয়ে অনেকেই করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। কিন্তু এই আক্রান্ত অবস্থাতেই ফোনের মাধ্যমে তারা কিন্তু নিজেদের কাজ করার চেষ্টা করে গেছেন।

তাদের কথা মাথায় রেখেই স্বাধীনতা দিবসের দিনে মোট ৫০জন করোনা যোদ্ধাকে সম্মানিত করলো পূর্ব বর্ধমান জেলা প্রশাসন। এদের মধ্যে ২৫ জন চিকিৎসক, নার্স, স্বাস্থ্যকর্মী, ঝাড়ুদার, আশা কর্মী আছেন। এছাড়া ২৫জন পুলিশ কর্মী ও আধিকারিককে সম্মানিত করা হয়। জেলা প্রশাসন সূত্রে জানা গেছে, আজ স্বাধীনতা দিবসের দিনে জেলার করোনা যোদ্ধাদের কুর্নিশ জানাতে মুখ্যমন্ত্রী দপ্তর থেকে রুপোর মেডেল পাঠানো হয়েছে। এদিন সেই রুপোর মেডেল করোনা যোদ্ধাদের হাতে তুলে দেন পূর্ব বর্ধমান জেলার জেলাশাসক বিজয় ভারতী। এদিন জেলাশাসকের দপ্তরে জাতীয় পতাকা উত্তোলন করেন জেলাশাসক। পরে ছোট্ট একটি অনুষ্ঠানের মাধ্যমে করোনা যোদ্ধাদের সম্মানিত করা হয়।

অন্যদিকে জেলা পুলিশ প্রশাসনের উদ্যোগে বর্ধমান পুলিশ লাইন মাঠে স্বাধীনতা দিবসের একটি অনুষ্ঠান করা হয়। সেই অনুষ্ঠানে ২৫ জন পুলিশ আধিকারিক–কর্মীদের সম্মানিত করা হয়। জেলা পুলিশ প্রশাসন সূত্রে জানা গেছে, লকডাউনের পরিস্থিতি যখন শ্রমিকদের রাজ্যে ফিরিয়ে আনা কাজ চলছিল সেই সময় বর্ধমান স্টেশনে নিজেদের প্রাণের ঝুঁকি নিয়ে টানা কাজ করেছিলেন সিভিক ভলান্টিয়াররা। তারা খুব ভালো কাজ করেছিলেন তাই তাদের উৎসাহ দিয়ে মনোবল বাড়াতে পুরস্কৃত করা হয়।এছাড়া এদিন পুলিশ কর্মী ও আধিকারিকদের সম্মান জানানো হয়।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here