মৃতদেহ দাহ না করেই শ্মশান ছাড়ল পরিজনেরা

স্নেহাশীষ মুখার্জি, আমাদের ভারত, নদিয়া, ১৬ মে:
মৃতদেহ দাহ না করেই শ্মশান ছাড়ল মৃতের পরিজনরা। স্থানীয়দের বক্তব্য, এখানে করোনা রোগী দাহ করা যাবে না। ঘটনাস্থলে বিক্ষোভকারীদের সাথ দেয় স্থানীয় কাউন্সিলরও। বাধার সম্মুখীন হয়ে পিছু হঠে পুলিশ। নদিয়ার রাণাঘাট শ্মশানের ঘটনা।

পুলিশের সাহায্যে করোনায় মৃত রোগী শ্মশানে পোড়ানো হবে এই খবরে উত্তাল হয়ে উঠল রানাঘাট শ্মশান।শনিবার বিকেল ৪ টে নাগাদ প্লাস্টিকে জড়ানো অবস্থায় আনুলিয়া মাজদিয়ার দেবাশিস ঘোষের মৃতদেহ রানাঘাট শ্মশানে নিয়ে আসা হয় দাহ করার জন্য।মৃতদেহের সঙ্গে আসা পরিজনদের দাবি, দেবাশীষ ঘোষের কোরোনা টেস্ট নেগেটিভ এসেছে। তাদের দাবি, গত ডিসেম্বর মাসে ট্রেন এক্সিডেন্টের আহত হওয়ার পর দেবাশিসের পুনরায় শরীর খারাপ হওয়ায় তাকে রানাঘাট মহকুমা হাসপাতালে ভর্তি করা হয় গত বুধবার। সেদিনই তিনি মারা যান। তাঁর করোনা উপসর্গ থাকায় তাকে করোনা টেস্ট করানো হয়।আজ তার রিপোর্ট নেগেটিভ আসে। এরপর তার পরিজনেরা ও পুলিশ দেহটি রানাঘাট শ্মশানে দাহ করতে এলে বাধার সম্মুখীন হয়।

স্থানীয়দের বক্তব্য, করোনা রোগী এখানে দাহ করা যাবে না। এখানে তাদের সংসার ও সন্তান আছে এখানে করোনা রোগী পোড়ানো হলে তাদের ক্ষতি হবে। ঘটনাস্থলে বিক্ষোভকারীদের সাথ দেয় স্থানীয় কাউন্সিলরও। কঠিন বাঁধার সম্মুখীন হয়ে পুলিশ পিছু হঠে। এমতাবস্থায় দাহ না করেই দেবাশিস ঘোষের মৃতদেহ নিয়ে রানাঘাট শ্মশান ছাড়ে মৃতের পরিজনেরা।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here