অধিগ্রহণ করার আগে লোকসভা ভোটের বকেয়া টাকা মেটাক সরকার, পালটা দাবি বাসমালিক সংগঠনগুলির

রাজেন রায়, কলকাতা, ১ জুলাই: রেশন রাজনীতির পাশাপাশি জমে উঠেছে যেন গণপরিবহণ রাজনীতিও। নিজেদের দাবিদাওয়ার স্বার্থে বিন্দুমাত্র সুর নরম করছে না বেসরকারি বাস মালিক সংগঠনগুলি। মুখ্যমন্ত্রীর ঘোষণার ২৪ ঘন্টা পরে নিজের মধ্যে বৈঠক করে তাঁরা ঘোষণা করলেন, ‘সরকার বাস অধিগ্রহণ করুক আপত্তি নেই, কিন্তু ২০১৯ ভোটের বকেয়া টাকা আগে মিটিয়ে দিক।’

মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় নবান্নে সাংবাদিক বৈঠকে ঘোষণা করেন, বুধবার যদি ৬ হাজার বেসরকারি বাস রাস্তায় না নামে, তাহলে সরকার বৃহস্পতিবার বাসগুলো অধিগ্রহণ করে চালাবে। বেসরকারি চালককে বেতন সিস্টেমে অথবা সরকারি চালক দিয়ে চলবে বেসরকারি বাস। মুখ্যমন্ত্রীর এই হুঁশিয়ারির পর বুধবারও কিন্তু রাস্তায় সেভাবে বেসরকারি বাস নামেনি। এই পরিস্থিতিতে সরকার যদি বাস অধিগ্রহণ করে, তাহলেও তাঁদের আপত্তি নেই বলছে বেসরকারি বাস মালিকদের সংগঠনগুলি। কিন্তু তাঁদের দাবি, সরকার আগে লোকসভা নির্বাচনের সময়ে নেওয়া বাবদ টাকাটা তো মেটাক।

ওয়েস্ট বেঙ্গল বাস মিনিবাস ওনার্স অ্যাসোসিয়েশনের যুগ্ম সম্পাদক প্রদীপ নারায়ণ বসু বলেন, ‘২০১৯ এ নির্বাচনের সময় আমাদের কাছ থেকে সরকার প্রচুর বাস অধিগ্রহণ করেছিল। সেই বাবদ ৫ কোটি টাকা বকেয়া রয়েছে। তারমধ্যে ২ কোটি টাকা দেওয়ার জন্য সরকার নির্দেশিকা জারি করেছিল। মার্চ মাস নাগাদ টাকা পাওয়ার কথা ছিল। লকডাউন শুরু হয়ে যাওয়ায় আমরা সেই টাকাও পাইনি। সরকার অন্তত সেই টাকা মেটাক। ‘

সেই সঙ্গে তিনি আরও বলেন, ‘সরকার বাস অধিগ্রহণ করে বাসের জ্বালানি ভরে চালাক। আমাদের জ্বালানির দাম বৃদ্ধির কষ্ট থাকবে না। তবে সাপ্তাহিক হিসাবে আমাদের বাস ভাড়া নেওয়ার টাকা মেটালেই চলবে। কিন্তু সরকার এখনও ২০১৯ লোকসভা নির্বাচনের টাকাটাই যে মেটায়নি।’ বাসমালিক সংগঠনগুলির নাছোড় মনোভাবের পর এখন বুধবার নবান্নে মুখ্যমন্ত্রী কী ঘোষণা করেন, সেটাই দেখার।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here