তিনি খ্রীস্টান! সেই জন্য স্বাধীনতা দিবসে জাতীয় পতাকা উত্তোলন করলেন না সরকারি স্কুলের প্রধান শিক্ষিকা

আমাদের ভারত, ১৭ আগস্ট: তিনি সরকারি বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষিকা। কিন্তু তার ধর্ম খ্রিস্টান। আর সেই কারণেই নাকি তিনি স্বাধীনতা দিবসের দিন দেশের জাতীয় পতাকা তুললেন না। হ্যাঁ এই ঘটনা ঘটেছে তামিলনাড়ুর ধর্মপুরী জেলার একটি সরকারি বিদ্যালয়ে। ওই শিক্ষিকার নাম তামিল সেলভি।

প্রধান-শিক্ষিকা নিজের পতাকা না তোলার কারণ ব্যাখ্যা করতে গিয়ে যে যুক্তি দিয়েছেন তা হল, তিনি খ্রিস্টান, তাই নাকি তিনি ঈশ্বর ছাড়া অন্য কাউকে অভিবাদন জানাতে পারেন না। তা সে যে কোন ব্যক্তিই হোক কিংবা বিমূর্ত পতাকা। তবে এই বছরই প্রথম নয়। গত চার বছর ধরেই নাকি তিনি স্বাধীনতা দিবসের দিন পতাকা উত্তোলন করেন না।

সরকারি বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষিকার এহেন আচরণের বিরুদ্ধে জেলার মুখ্য শিক্ষা অধিকারের কাছে নালিশ জানিয়েছেন অনেকেই। অভিযোগে বলা হয়েছে অসুস্থতার কথা বলে আগেও স্বাধীনতা দিবসের দিন অনুপস্থিত থেকে গেছেন ওই প্রধান শিক্ষিকা।

নিজের কাজকে সমর্থন করে একটি ভিডিও বার্তা দিয়েছেন ওই শিক্ষিকা। সেখানে তিনি বলেছেন, তিনি ইয়াকুব খ্রিষ্টান। তাই তিনি জাতীয় পতাকা উত্তোলন কিংবা পতাকাকে অভিবাদন জানাতে পারেন না। তার মতে “আমরা শুধু ঈশ্বরকে প্রণাম বা অভিবাদন জানাই”। তবে তিনি দাবি করেছেন তিনি জাতীয় পতাকাকে অসম্মান করেন না। কিন্তু অভিবাদন জানানোর কথা উঠলে তিনি শুধু সেক্ষেত্রে ঈশ্বরকে স্থান দেবেন। সেই জন্যই তিনি তার সহকর্মীকে পতাকা উত্তোলন করতে বলেছেন বলে জানান।

সারা দেশজুড়ে যখন সরকারি স্তরের হর ঘার তেরাঙ্গা নিয়ে জোর কদমে কর্মসূচি চালানো হয়েছে তখন এই ঘটনায় অবাক হয়েছেন সকলেই। এখন দেখার, জাতীয় পতাকা অবমাননার দায়ে ওই শিক্ষিকার বিরুদ্ধে কোনো পদক্ষেপ করা হয় কি না।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here