আজমের শরিফ দরগায় রয়েছে হিন্দু মন্দিরের নিদর্শন, সমীক্ষা চালানোর দাবি তুলল হিন্দু সেনা

আমাদের ভারত, ২৭ মে: রাজস্থানের আজমের শরিফ বা মইনুদ্দিন চিশতির দরগাতে রয়েছে হিন্দু মন্দিরের নিদর্শন। জ্ঞানবাপীর পর এমনটাই দাবি তুলল মহারানা প্রতাপ সেনা। তারা দরগায় আর্কিওলজিক্যাল অফ ইন্ডিয়াকে দিয়ে সমীক্ষার দাবি তুলেছেন।

সুফি সাধকের দরগা হিসেবে পরিচিত এই উপাসনা স্থলে সারা বছর দেশ-বিদেশের পর্যটকে ভরে থাকে। হিন্দু মুসলমান সবাই এখানে প্রবেশ করতে পারে। কিন্তু মুসলিমদের এই উপাসনা স্থানকে হিন্দু মন্দির বলে দাবি করছে হিন্দুত্ববাদী সংগঠন মহারানা প্রতাপ সেনা। ওই দরগাকে হিন্দু মন্দিরের অংশ বলে দাবি করছেন তারা। সংগঠনটি তরফে রাজ বর্ধন পারমার দাবি করেছেন, দরগার জানলায় দেওয়ালে হিন্দু দেবদেবী নিদর্শন আছে। স্বস্তিক চিহ্ন রয়েছে। তিনি দাবি করেছেন, আর্কিওলজিক্যাল সার্ভে অফ ইন্ডিয়াকে নিয়ে সমীক্ষা করালেই এই দাবির সত্যতা মিলবে।

অন্যদিকে দারোগা কর্তৃপক্ষের তরফে এই বক্তব্য ভিত্তিহীন বলে দাবি করা হয়েছে। তারা বলেন, “দায়িত্ব নিয়ে বলছি দারগাতে কোনো হিন্দু মন্দির বা দেবদেবীর নিদর্শন নেই। ৮০০ বছরের বেশি পুরনো দারগা নিয়ে অতীতে কেউ এমন দাবি তোলেনি বরং হিন্দু-মুসলিমের মিলনের নিদর্শন হিসেবে এটি বিরাজ করছে।

কিন্তু হিন্দু সেনার তরফে এ বিষয়ে রাজস্থানের মুখ্যমন্ত্রী অশোক গেহলেঠ এবং কেন্দ্রীয় সরকারকে চিঠি লিখে তদন্তের দাবি জানানো হয়েছে। সংগঠনের তরফে পারমার বলেছেন, এক সপ্তাহের মধ্যে তদন্ত না হলে তিনি কেন্দ্রীয় মন্ত্রীদের সঙ্গে দেখা করবেন এবং তাতেও কোনো সমাধান না হলে বৃহত্তর আন্দোলনে নামবেন তাদের কর্মীরা। প্রায় ২ হাজার মহারানা প্রতাপ সেনা কর্মী আজমের গিয়ে আন্দোলন করবেন বলেও জানিয়েছেন তিনি। একইসঙ্গে আদালতের দ্বারস্থ হওয়ার হুঁশিয়ারি দিয়েছেন মহারানা প্রতাপ সেনা।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here