দ্য কেরালা স্টোরি! নিখোঁজ ৩২ হাজার মেয়ে, করা হয়েছে জোর করে ধর্মান্তরিত

আমাদের ভারত, ৫ নভেম্বর: দেশের একটি রাজ্যে ৩২ হাজার মহিলা নিখোঁজ। সেটা নিয়ে কি কারোর কোনো মাথাব্যথা আছে? প্রশাসন বা রাজনৈতিক ব্যক্তিদের কথা জানা নেই, তবে পরিচালক সুদীপ্ত সেনকে বিষয়টি ভাবিয়েছে। আর তারপরেই তিনি ছবি তৈরি করেছেন। এই মারাত্মক সিনে কাহিনীর নেপথ্যে গল্প নাকি আরো ভয়ংকর কিছু।

ছবি তৈরি করতে গিয়ে পরিচালক জেনেছেন এত সংখ্যক মহিলাকে স্রেফ তুলে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। তাদের কোথায় নিয়ে যাওয়া হয়েছে‌ কেউ জানে না। শোনা যাচ্ছে, সিরিয়া আফগানিস্তানে তাদের নিয়ে যাওয়া হয়েছে ও সেখানে জোর করে ধর্মান্তরিত করা হয়েছে। তাদের আইসিস জঙ্গি বানানো হয়েছে সবাইকে। এই ছবিতে প্রশ্ন তোলা হয়েছে বছরের পর বছর ধরে এই ঘটনা ঘটছে, অথচ কেরল সরকার কি জেগে ঘুমোচ্ছে?

এমন জ্বলন্ত ইস্যু পর্দায় দেখানো যথেষ্ট বিপদজনক। নিজেদের প্রাণ বাঁচাতে বেশিরভাগ প্রয়োজক বা পরিচালক মূল গল্প থেকে সরে আসবেন। তবে ব্যতিক্রম প্রযোজক বিপুল শাহ ও পরিচালক সুদীপ্ত। তারা ভয় পাননি, মূল গল্প থেকে সরেও আসেননি। চার বছর ধরে খুঁটিয়ে গবেষণা চালিয়েছেন। তারপরেই এই ছবিটি তৈরি করেছেন তারা।

ছবির প্রতিটি দৃশ্যে মেয়েদের চোখের জল হিংস্রতা জঙ্গিবাদ ও নারকীয় অত্যাচারে ছবি দেখা গেছে। বৃহস্পতিবার মুক্তি পেয়েছে ছবিটির ট্রিজার। প্রযোজকের দাবি, প্রথম দৃশ্যেই সেই বীভৎসতা দেখতে পাবেন দর্শকরা।

ট্রিজার দেখানো হয়েছে, নার্স হওয়ার স্বপ্ন নিয়ে যে মেয়েটির বাড়ির বাইরে পা রেখেছিল। তাকে কিভাবে অপহরণ করা হয়েছে।এখন সে আইসিস জঙ্গি।আফগানিস্তানের কারাগারে বন্দি। এই ভূমিকায় অভিনয় করেছেন আদাহ শর্মা। ছবি সম্পর্কে বলতে গিয়ে বিপুল এর আগে সাক্ষাৎকারে জানিয়েছেন, “নিখোঁজ মেয়েদের জীবন কাহিনী শুনতে শুনতে কেঁদে ফেলেছিলাম। কত স্বপ্ন নিয়ে মেয়েরা কাউকে বিশ্বাস করে, আর সেই বিশ্বাস ভাঙতে বিশ্বাসঘাতকদের একটুও সময় লাগে না।”

এভাবেই ২০০৯ থেকে কেরল এবং ম্যাঙ্গালোর থেকে প্রচুর হিন্দু ও খ্রিস্টান নারীকে ইসলাম ধর্মে ধর্মান্তরিত হতে বাধ্য করা হয়েছে।

পরিচালক সুদীপ্ত কেরল রাজ্যে গিয়েছিলেন। এমনকি আরব দেশগুলিতেও গিয়েছিলেন। সেখানকার স্থানীয় বাসিন্দা এবং নিহতদের পরিবারের সঙ্গে দেখা করেছেন, কথা বলেছেন এবং সবটা শুনে হতবাক হয়েছেন। এরই কিছুটা ধরা পড়েছে দ্য কেরালা স্টোরির টিজারে। যা পুরোটা জানা যাবে নতুন বছরে।

‘মনেপ্রাণে হিন্দুত্ববাদী’দের কাছে অনুরোধ। আমাদের সাহায্য করুন। খুব আর্থিক সঙ্কটের মধ্যে দিয়ে সাড়ে পাঁচ বছর ধরে ২৫ জন রিপোর্টার, বাংলায় একমাত্র আমরাই প্রতিদিন এই ধরণের খবর করছি। 🙏
ব্যাঙ্ক একাউন্ট এবং ফোনপে কোড:
Axis Bank
Pradip Kumar Das
A/c. 917010053734837
IFSC. UTIB0002785
PhonePay. 9433792557
PhonePay code. pradipdas241@ybl

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here