সাত বছর পর বাড়ি ফিরল হারিয়ে যাওয়া মেয়ে

জে মাহাতো, আমাদের ভারত, পশ্চিম মেদিনীপুর, ২৪ সেপ্টেম্বর: সাত বছর আগে ট্রেনে যাওয়ার পথে হারিয়ে যাওয়া মেয়েকে ফিরে পেলেন বাবা-মা। দাঁতনের একটি স্বেচ্ছাসেবী হোম থেকে বাড়ি ফিরেছে হারিয়ে যাওয়া পরশমণি সিং মুর্মু। পুলিশে খবর দেওয়ার পরেও খোঁজ না মেলায় একপ্রকার আশা ছেড়েই দিয়েছিলেন বাবা সত্যজিৎ সিং এবং মা বীণা সিং। 

পরশমণির বাবা সত্যজিৎ সিং জানিয়েছেন, তাদের মেজো মেয়ে ১১ বছরের পরশমণি ২০১৪ সালে বালিচক স্টেশন থেকে  ট্রেনে ভুল করে বর্ধমানে চলে যায়। পরে চাইল্ড লাইন মানসিক ভারসাম্যহীন পরশমণিকে বর্ধমান স্টেশন থেকে উদ্ধার করে এনে মেদিনীপুরের সরকারি হোমে রাখে। সেখান থেকে ২০২০ সাল নাগাদ তাকে দাঁতনের একটি বেসরকারি হোমে  পাঠানো হয় এবং সেখানেই তাঁর চিকিৎসা শুরু হয়। চিকিৎসা শুরুর কিছুদিন পরে নাম পরিচয় এবং পরিবারের সন্ধান বলে পরশমণি।

এরপরই খোঁজ শুরু করে হোম কর্তৃপক্ষ জানতে পারেন, পরশমণির পরিবারের সকলে সেই সময় বালিচকেই থাকত। বাবা সাপুড়িয়ার কাজ করে সংসার চালাতেন। পরে বালিচক থেকে সকলে ওড়িশার জলেশ্বরে চলে যায়। পরিবারের খোঁজ ও চিকিৎসা সম্পূর্ণ হওয়ার পর পশ্চিম মেদিনীপুরের জেলা শাসকের দপ্তর থেকে অতিরিক্ত জেলা শাসক পরশমণিকে তার বাবার হাতে তুলে দেন।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here