মোদীকে বিশ্বাস করতে নারাজ, তাই মসজিদেই কোয়ারেন্টাইন চাইছে মুসলিম সম্প্রদায়

চিন্ময় ভট্টাচার্য
আমাদের ভারত, ৫ এপ্রিল: করোনা ভাইরাসই হোক বা অন্য কিছু, মোদী সরকারের সব চেষ্টাতেই সাম্প্রদায়িকতা দেখে থাকে মুসলিম সম্প্রদায়। সেই কারণে, কোনও ক্ষেত্রে মোদী সরকার গোটা দেশকে নিয়ন্ত্রণে রাখবে, এটা দেশের মুসলিম সম্প্রদায়ের অপছন্দ। একথা মাথায় রেখেই শনিবার মুসলিম সম্প্রদায়ের এক শক্তিশালী সংগঠন, ‘অল ইন্ডিয়া সুন্নাত অল জামায়ত’ তাদের বিভিন্ন মসজিদে কোয়ারান্টাইন সেন্টার চালুর জন্য কেন্দ্রীয় সরকারের কাছে সুপারিশ করল।

সূত্রের খবর, মসজিদে থাকলে মুসলিম সম্প্রদায়ের লোকজন একসঙ্গে থাকতে পারবে। পাশাপাশি, একসঙ্গে থাকলে ধর্মীয় আচার পালন করতেও সুবিধা হবে, একথা মাথায় রেখে ওই মুসলিম সংগঠন কেন্দ্রকে মসজিদগুলোয় কোয়ারান্টাইন সেন্টার তৈরির প্রস্তাব দিয়েছে।
সংগঠনের তরফে এই প্রস্তাব দিয়েছেন মুফতি আবদুল মতিন। তাঁর দাবি, উত্তর এবং দক্ষিণ ২৪ পরগনা-সহ রাজ্যের বিভিন্ন জেলায় তাঁরা ৮৬টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান (মাদ্রাসা) চালান। সেগুলোকেই কোয়ারান্টাইন সেন্টার হিসেবে ব্যবহারের জন্য তিনি সরকারের কাছে প্রস্তাব দিয়েছেন।

শুধু মতিনই নন। ফুরফুরা দরবার শরিফের পীরজাদা আব্বাস সিদ্দিকিও জানিয়েছেন, করোনা রোধে সরকার চাইলে তাঁর তৈরি নলেজ সিটিকে কোয়ারেন্টাইনের জন্য ব্যবহার করতে পারে। মুখ্যমন্ত্রীকে ভিডিও বার্তায় তিনি এই প্রস্তাব দিয়েছেন। সূত্রের খবর, বিশেষজ্ঞরা যাই বলুন, এদেশের মৌলবীদের অধিকাংশেরই ধারণা, যেভাবে নমাজের আগে ‘অজু’ বা অঙ্গ পরিষ্কার করা হয়, তাতে কেবল মসজিদে থাকলেই মুসলিম সম্প্রদায়ের ছেলেরা নোভেল করোনা ভাইরাসের থেকে রক্ষা পাবেন।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here