গরিব কল্যাণ রোজগার যোজনায় রাজ্যের নাম বাদ দেওয়ায় সরব তৃণমূল

আমাদের ভারত, হাওড়া, ২৭ জুন: দেশের যে সমস্ত জেলায় ২৫ হাজারের বেশি পরিযায়ী শ্রমিক ফিরেছেন তাদের গরিব কল্যাণ রোজগার যোজনায় অন্তর্ভুক্ত করা হবে। কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারমন এই ঘোষণা করলেও পশ্চিমবঙ্গের নাম এই প্রকল্প থেকে বাদ দেওয়ায় সরব হল তৃণমূল কংগ্রেস। শনিবার উলুবেড়িয়া প্রেস ক্লাবে এক যৌথ সাংবাদিক সম্মেলন করে কেন্দ্রীয় সরকারের এই বিমাতৃসুলভ আচরণের বিরুদ্ধে সরব হলেন হাওড়া গ্রামীণ জেলা তৃণমূল কংগ্রেসের সভাপতি বিধায়ক পুলক রায় ও জেলার কো-অর্ডিনেটর বিধায়ক সমীর পাঁজা। 

এদিন তারা অভিযোগ করেন, প্রকল্পের আওতায় বিহার, উত্তর প্রদেশ, মধ্যপ্রদেশ, রাজস্থান সহ একাধিক রাজ্যের ১১১টি জেলা অন্তর্ভুক্ত হলেও পরিকল্পিতভাবে এই রাজ্যের নাম বাদ দেওয়া হয়েছে। তারা অভিযোগ করেন, হাওড়া জেলায় প্রায় ৪২ হাজার ৭৫৯ জন পরিযায়ী শ্রমিক আসলেও হাওড়া জেলা বঞ্চিত হয়েছে। শুধু তাই নয় রাজ্যের ২১টি জেলায় ২৫ হাজারেরও বেশি পরিযায়ী শ্রমিক ফিরলেও তাদের নাম প্রকল্পে অন্তর্ভুক্ত করা হয়নি। এদিন তৃণমূল নেতারা অভিযোগ করেন, বিশ্বের অন্যান্য দেশে তেলের দাম কমলেও ভারতে তেলের দাম ক্রমশ বাড়তে থাকায় নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিসপত্রের দামও বাড়ছে ফলে নাভিশ্বাস উঠছে সাধারণ মানুষের। তারা বলেন, লকডাউনের জেরে মানুষের জীবনযাত্রায় পরিবর্তন এসেছে কিন্তু কেন্দ্রীয় সরকার এটাকে গুরুত্ব না দিয়ে একটা পরিহাসে পরিণত করেছে। তৃণমূল নেতৃত্ব অভিযোগ করেন, রাজ্যের এই কঠিন পরিস্থিতির সময় বিজেপি বিভিন্ন জনকল্যাণমূলক প্রকল্প থেকে বাংলার মানুষকে বঞ্চিত করেছে এবং সেই টাকা নিজেদের সঞ্চয় বৃদ্ধির কাজে লাগিয়েছে। তাদের অভিযোগ, করোনা আমফান মোকাবিলায় রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী যখন মানুষের পাশে থাকছেন তখন কেন্দ্রীয় সরকার জিনিসপত্রের দাম বৃদ্ধি করে সাধারণ মানুষকে সমস্যার মুখে ঠেলে দিচ্ছে। বিজেপির এই নোংরা রাজনীতিকে সাধারণ মানুষ ভালোভাবে মেনে নেবে না বলেও দাবি করেন দুই বিধায়ক।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here