“নতুন কৃষি বিল যুগান্তকারী, যা আগামী দিনে নতুন করে বাঁচতে শেখাবে কৃষকদের”, মালদায় বললেন শ্রীরূপা মিত্র চৌধুরী

আমাদের ভারত, মালদা, ২৭ সেপ্টেম্বর: কেন্দ্রীয় সরকারের কৃষি বিল নিয়ে রবিবার মালদার পুরাটুলি বাঁধ রোড এলাকায় জেলা বিজেপি কার্যালয়ে সাংবাদিক বৈঠক করলেন কৃষি বিল বিষয়ক আহ্বায়ক শ্রীরূপা মিত্র চৌধুরী। উপস্থিত ছিলেন মালদা জেলা সহ উত্তর দিনাজপুর ও দক্ষিণ দিনাজপুর জেলার সাংগঠনিক বিজেপির নেতৃত্ব‘ রাজ্য বিজেপির কিষাণ মোর্চার সভাপতি মহাদেব সরকার, উত্তর মালদার বিজেপি সাংসদ খগেন মুর্মু জেলা বিজেপি সভাপতি গোবিন্দ চন্দ্র মন্ডল, সহ সভাপতি অজয় গঙ্গুলি সহ অন্যান্য নেতৃত্বরা।

শ্রীরূপা মিত্র চৌধুরী সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে রাজ্য বিজেপি কমিটির সদস্য তথা উত্তরবঙ্গের কিষাণ বিলের কনভেনার শ্রীরূপা মিত্র চৌধুরী জানান, আমাদের গোটা রাজ্যেজুড়ে বারোটি সাংবাদিক সম্মেলন আয়োজন করেছে ভারতীয় জনতা পার্টি ও ভারতীয় জনতা পার্টির কিষাণ মোর্চা। ২৬ তারিখ থেকে শুরু করে অক্টোবরের ৪ তারিখ পর্যন্ত এই সাংবাদিক সম্মেলন হবে।এই জোনাল সম্মেলন মালদা উত্তর ও দক্ষিণ দিনাজপুর জেলার সাংগঠনিক কর্তাদের নিয়ে হচ্ছে। আমাদের এই সাংবাদিক সম্মেলনের মূল উদ্দেশ্য কৃষি বিল নিয়ে আমরা আগামী দিনে কৃষকদের কিভাবে বুঝাবো। আগামী ২৮ তারিখ থেকে শুরু করে অক্টোবর মাসের ৪ তারিখ পর্যন্ত পশ্চিম বাংলার এবং উত্তর বাংলার প্রতিটি বিধানসভার কৃষক সুরক্ষা এবং সম্মান পদযাত্রা করা হবে। এই পদযাত্রাগুলি বিধানসভা ভিত্তিক হবে। সেখানে কৃষকরা অংশগ্রহণ করবে। আমাদের দলের বিভিন্ন নেতারা এবং সংসদ স্থানীয় জনপ্রতিনিধিরা পঞ্চায়েত মেম্বাররা এই পদযাত্রায় অংশগ্রহণ করবে। ৪ তারিখের পর আমরা রাজ্যজুড়ে চাষি ভাইদের নামে আমরা পত্রক বিতরণ করব। প্রতিটি বিধানসভায় কুড়ি হাজার করে পত্রক বিতরণ করা হবে। সেই পত্রকে সরল গ্রামীণ ভাষায় চাষি ভাইদের সমস্যা কি এবং এই কৃষি বিল চাষি ভাইদের কিভাবে সমস্যা মেটাবে সেই সম্পর্কে হ্যান্ডবিল বিতরণ করা হবে। এই হ্যান্ডবিল বিতরণ করবেন ভারতীয় জনতা পার্টির কিষাণ মোর্চার সদস্যরা।

তিনি বলেন, এই কৃষি বিল যুগান্তকারী বিল। এই কৃষি বিল পার্লামেন্টে তিনটি ধাপে পাস হয়েছে। এতদিন কৃষকরা যে পদ্ধতিতে তাদের উৎপাদিত ফসল বিক্রি করে লাভ করত সেটা এই কৃষি বিল নিয়ম অনুযায়ী থাকছে না। এখন থেকে কৃষক ভাইয়েরা তাদের উৎপাদিত ফসল সরাসরি বিক্রেতাদের কাছে নিয়ে গিয়ে বিক্রি করতে পারবে। তার সম্পূর্ণ দাম কৃষকই পাবে। মাঝখানে কোনও সিন্ডিকেট দালাল রাজ আর চলবে না। কোনও সরকার এতদিন ধরে কৃষকদের কথা ভাবেনি। তাদের কষ্টের দাম তারা পায়নি। কিন্তু আমাদের ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী কৃষকদের কথা মাথায় রেখেই এই বিল করেছেন। এই কৃষাণ বিল কৃষকদের আগামী দিনে নতুন করে বাঁচতে শেখাবে। উপকৃত হবেন ভারতের কৃষকরা।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here