নির্দিষ্ট সংখ্যক যাত্রী হয়ে গেলেই বন্ধ স্টেশনের গেট, বন্ধ টোকেনও, নয়া বিধি নিষেধে চালু হবে মেট্রো

রাজেন রায়, কলকাতা, ২৭ জুন: শুক্রবারই নবান্নে ১ জুলাই থেকে শহরে মেট্রো চালু করার প্রস্তাব দিয়েছিলেন মুখ্যমন্ত্রী। কিন্তু সামাজিক দূরত্ব মেনে কি ভাবে পরিষেবা স্বাভাবিক করা যায়, সেই বিষয়ে পুলিশ কমিশনার অনুজ শর্মা মেট্রো কর্তৃপক্ষের সঙ্গে বৈঠক করতে নির্দেশ দেন। তবে মুখ্যমন্ত্রীর তরফে রেল মন্ত্রককে এই আবেদনের পরই মেট্রো বিশেষ কিছু পরিকল্পনার সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

জানা গিয়ে়ছে, মেট্রো চালু হলে প্রত্যেক কামরায় মাত্র ৫৪ জন করে যাত্রী থাকবেন, গোটা ট্রেনে থাকবেন ৪৩২ জন। সংখ্যাটা সম্পূর্ণ হয়ে গেলে আর কেউ ট্রেনে উঠতে পারবেন না। সেই কারণে নির্দিষ্ট সংখ্যক যাত্রী হয়ে গেলে বন্ধ করে দেওয়া হতে পারে মেট্রো স্টেশনে ঢোকার মূল গেট। তাই ট্রেন ধরতে আসা বাকি যাত্রীদের সামাজিক দূরত্ব রেখে অপেক্ষা করতে হবে স্টেশনের বাইরে। আর সেই লাইনের দেখভালের দায়িত্বে থাকবে কলকাতা পুলিশ। এতে জমায়েত এড়ানো যাবে বলে মত মেট্রোকর্তাদের।

মেট্রো সূত্রে খবর, এই নিয়ে মেট্রোর মধ্যে সচেতনতামূলক প্রচার চালানো হবে। প্রত্যেক যাত্রীকে অবশ্যই মাস্ক পরে স্টেশনে ঢুকতে হবে। স্টেশনে প্রবেশের আগে সকলের থার্মাল স্ক্যানিং হবে। সামাজিক দূরত্ব মেনে প্ল্যাটফর্ম এবং টিকিট কাউন্টারের বাইরে হলুদ দাগ দিয়ে যাত্রীদের দাঁড়ানোর ব্যবস্থা করা থাকছে। স্টেশনে থাকা কর্তব্যরত আরপিএফ কর্মীরা প্রত্যেকেই পিপিই-সহ গ্লাভস পরে কাজ করবেন। স্টেশনে মাস্ক ও হ্যান্ড স্যানিটাইজার রাখার কথাও ভাবা হচ্ছে।

এবার থেকে মেট্রোর এন্ট্রি এবং এক্সিট গেটও আলাদা করা হচ্ছে। যাত্রীরা যে গেট দিয়ে পাতালে নামবেন, সেখান দিয়ে আর তাদের বেরোতে দেওয়া হবে না। আর মেট্রোর কর্মীদের সঙ্গে যাতে যাত্রীদের শারীরিক সংস্পর্শ এড়ানো যায়, সেই জন্য আপাতত টোকেন ব্যবস্থা তুলে দেওয়া হবে। শুধু স্মার্ট কার্ডই ব্যবহার করতে পারবেন যাত্রীরা।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here