বাড়িতে না থাকতে দেওয়ার দাবি তুলে নার্সের পরিবারকে হেনস্থার অভিযোগ স্থানীয়দের বিরুদ্ধে

স্নেহাশীষ মুখার্জি, আমাদের ভারত, নদীয়া, ২৪ জুলাই:
সরকারি হাসপাতালে নার্সের করোনা পজেটিভ। স্বাস্থ্য দপ্তরে নির্দেশে হোম কোয়ারেন্টাইনে নার্স। বাড়িতে না থাকতে দেওয়ার দাবি তুলে নার্সের পরিবারকে হেনস্তার অভিযোগ উঠল স্থানীয়দের বিরুদ্ধে। নদীয়ার শান্তিপুর থানা এলাকার ঘটনা।

স্বাস্থ্য দফতর সূত্রের খবর, দুইদিন আগে শান্তিপুর স্টেট জেনারেল হাসপাতালে কর্মরত এক নার্সের সোয়াব টেস্ট করা হলে তাঁর রিপোর্টে পজেটিভ ধরা পড়ে। কিন্তু তাঁর শরীরে কোনও করোনার উপসর্গ ছিল না। যেহেতু বর্তমান পরিস্থিতিতে লাফিয়ে লাফিয়ে করোনার সংখ্যা বেড়ে চলেছে সেই তুলনায় করোনার বেডের সংখ্যা অনেকটাই কম, সেই কারণেই স্বাস্থ্য দপ্তর থেকে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে যাদের শরীরে কোনও উপসর্গ পাওয়া যাবে না কিন্তু পজিটিভ তারা হোম কোয়ারেন্টিনে থেকেই চিকিৎসা করতে পারে। সেই কারণেই স্বাস্থ্য দপ্তর থেকে ওই নার্সকে হোম কোয়ারেন্টাইন এ থাকার নির্দেশ দেয়।

সেই নির্দেশ মতই ঐ নার্স হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকেন। কিন্তু অভিযোগ তিনি যেহেতু করোনা পজেটিভ তাই তিনি বাড়িতে থাকতে পারবেন না। এই অভিযোগ তুলে কিছু প্রতিবেশী তাঁর বাড়ির সামনে বিক্ষোভ দেখায়। নার্স এবং তার পরিবারের অন্যান্য সদস্যদের হেনস্থা করার অভিযোগ ওঠে। করোনা আক্রান্ত নার্স বলেন, জীবনের ঝুঁকি নিয়ে আমরা এই পরিস্থিতিতে কাজ করে চলেছি। কিন্তু আমরা যদি সাধারণ মানুষের হেনস্থার মুখে পড়ি তাহলে পরিষেবা আগামী দিনে দেব কিভাবে।

শান্তিপুর স্টেট জেনারেল হাসপাতালে সুপার জয়ন্ত বিশ্বাস বলেন, এটা খুব দুঃখজনক ঘটনা। যেখানে স্বাস্থ্যকর্মীরা জীবনের ঝুঁকি নিয়ে মানুষের পরিষেবা দিয়ে যাচ্ছেন সেখানে যদি সাধারণ মানুষের দ্বারা হেনস্থার শিকার হতে হয় তাহলে আগামী দিনে কাজ করার উৎসাহ কোথা থেকে পাবে? মানুষকে আরো মানবিক হতে হবে।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here