বিরোধীরা সিন্ডিকেট তৈরি করে বিজেপির বিরোধিতা করছে: জয়

আমাদের ভারত, হাওড়া, ৪ অক্টোবর: উত্তরপ্রদেশের ঘটনা নিয়ে বিরোধিতায় এমন ভাব দেখাচ্ছে যেন ভারতবর্ষে এই প্রথম ধর্ষণের ঘটনা ঘটল। আসলে একটা সিন্ডিকেট তৈরি করে বিজেপির বিরোধিতায় নেমেছে। যদিও যতদিন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী বেঁচে থাকবেন ততদিন বিজেপিকে কেউ একটা টোকাও দিতে পারবে না। রবিবার আমতার কলাতলায় এক জনসভায় এই ভাবেই বিরোধীদের একহাত নেন বিজেপির কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য জয় বন্দ্যোপাধ্যায়।

এদিন জয় বলেন, উত্তরপ্রদেশের ঘটনা নিয়ে তৃণমূল আন্দোলন করছে কিন্তু রাজ্যের পার্কস্ট্রিট বা কামদুনির ঘটনায় তৃণমূল চুপ করেছিল। তাহলে কি সেই সময় এই দুটি ঘটনা রাজ্যের মুখ উজ্জ্বল করেছিল এই প্রশ্নও তোলেন জয় বন্দ্যোপাধ্যায়। এদিন তিনি বলেন, কেরালায় ধর্ষণ হলেও সিপিএম চুপ করে থাকে, রাজস্থানে ধর্ষণের ঘটনা ঘটলেও কংগ্রেস চুপ করে থাকে অথচ উত্তরপ্রদেশের ঘটনায় বিরোধীরা একজোট হয়ে সুর চড়িয়েছে। যদিও এতে বিজেপির কোনও ক্ষতি হবে না। কারণ নরেন্দ্র মোদী এমন একজন প্রধানমন্ত্রী যিনি দেশের মানুষের স্বার্থে সব সময় কাজ করে চলেছেন। এদিন জয় বলেন, প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী যতদিন বেঁচে থাকবেন ততদিন ভারতবর্ষের প্রধানমন্ত্রী হওয়ার স্বপ্ন বাস্তবায়িত হবে না মমতা ব্যানার্জির। ২০১৯ এ সমস্ত ভাইরাসযুক্ত নেতাদের ব্রিগেডে একত্রিত করেও বিজেপির কেন্দ্রে আসা আটকাতে পারেনি মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

জয় বলেন, মুখ্যমন্ত্রী বিজেপিকে মহামারী বলেছেন, বিজেপি মহামারী না মহাশক্তি সেটা ২০২১ এর নির্বাচনী উনি হাড়ে হাড়ে টের পেয়ে যাবেন। এদিন জয় মুখ্যমন্ত্রীকে কটাক্ষ করে বলেন, ২০১৯ এ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় যে আঘাতটা খেয়েছেন সেটা উনি বরদাস্ত করতে পারছেন না। আর ২০২১ এ যে ধাক্কাটা খাবেন সেটা উনি কিভাবে সামলাবেন সেটা নিয়ে এখন থেকেই আমি চিন্তায় আছি। এদিন জনসভা শুরুর আগে কৃষি আইনের সমর্থনে আমতায় একটি পদযাত্রায় অংশ নেন জয় বন্দ্যোপাধ্যায়।

এদিনের এই অনুষ্ঠানে অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন মন্ডল সভাপতি তন্ময় ধারা জন বিস্তারক নীধির সরকার, প্রাক্তন মন্ডল সভাপতি সুরেন্দ্র শুক্লা, বিজেপির হাওড়া গ্রামীন জেলার  প্রাক্তন কোষাধক্ষ্য বৈদ্যনাথ কুঁতি।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here