সুবিচারের দাবিতে হাইকোর্টের দ্বারস্থ ইছাপুরের তরুণের বাবা-মা, রাজ্যের হলফনামা তলব

রাজেন রায়, কলকাতা, ১৪ জুলাই: ১১ ঘন্টা ধরে তিন হাসপাতাল ঘুরতে ঘুরতে অক্সিজেনের অভাবে কাহিল হয়ে গিয়েছিল ইছাপুরের যুবক শুভ্রজিৎ চট্টোপাধ্যায়। ফলে হাসপাতালে ভর্তি হওয়ার কয়েক ঘন্টার মধ্যেই মৃত্যু হয় তাঁর। এবার কলকাতা হাইকোর্টের প্রধান বিচারপতির দ্বারস্থ হয়ে ময়নাতদন্ত ও নিরপেক্ষ তদন্ত দাবি করলেন ওই তরুণের মা। তাঁকে আপাতত মৌখিকভাবে অনলাইনে মামলা করার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। মঙ্গলবার থেকেই জরুরি ভিত্তিতে শুনানি চেয়েছেন তিনি। সেই ভিত্তিতে রাজ্যের হলফনামা তলব করেছে হাইকোর্ট।

রবিবার সকালে ছেলের মৃত্যুতে দোষীদের শাস্তি চেয়ে বেলঘড়িয়া থানায় এফআইআর দায়ের করেছিলেন সন্তানহারা দম্পতি। তাঁদের সন্তান আদৌ করোনা আক্রান্ত ছিল কিনা, কেন তাদের এভাবে সব হাসপাতাল ফিরিয়ে দিল, এই প্রশ্নের তারা জবাব চেয়েছেন। এ দিন আদালতে তাদের মামলার প্রেক্ষিতে রাজ্যের কাছে হলফনামা চেয়ে পাঠিয়েছে হাইকোর্ট।

একই সঙ্গে শুভ্রজিৎ চট্টোপাধ্যায়ের দেহের ময়নাতদন্ত করতে হবে তার পাশাপাশি ময়নাতদন্তের প্রক্রিয়া ভিডিওগ্রাফির মাধ্যমে করতে হবে বলে নির্দেশ দিলেন কলকাতা হাইকোর্টের বিচারপতি দেবাংশু বসাক। আগামী তিন সপ্তাহের মধ্যে রাজ্যকে হলফনামা দিয়ে জানাতে হবে, যে কেন চিকিৎসা পরিষেবা পেলেন না ইছাপুরের এই যুবক। ২০ জুলাই পর্যন্ত হাইকোর্ট বন্ধ থাকলেও সুবিচারের আশায় থাকা মা বাবাকে ফিরিয়ে দেয়নি হাইকোর্ট।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here