বাংলার মানুষ বিজেপিকে বিশ্বাস করে না: সুকান্ত পাল

আমাদের ভারত, হাওড়া, ১০ জুন: করোনার পাশাপাশি আমফান ঘূর্ণিঝড় মোকাবিলায় রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বাংলার মানুষের পাশে থেকে কাজ করলেও বিজেপি মিথ্যা কুৎসার আশ্রয় নিয়ে রাজ্যে একটা অস্থির পরিবেশের সৃষ্টি করছে। যদিও বাংলার মানুষ বিজেপির অপপ্রচারে কান দিচ্ছে না। কারণ বাংলার মানুষ বিজেপিকে বিশ্বাস করে না। তারা বাংলার মা মাটি সরকারকেই বিশ্বাস করে। বুধবার আমতা ২ নং ব্লকের জয়পুরে তৃণমূলের দলীয় কার্যালয়ে এক সাংবাদিক সম্মেলনে এই দাবি করেন তৃণমূল যুব’র হাওড়া গ্রামীণ জেলা সভাপতি তথা আমতা ২ নং পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি সুকান্ত পাল।

এদিন তিনি বলেন, করোনা মোকাবিলায় রাজ্যে
লকডাউন শুরুর পর থেকেই মুখ্যমন্ত্রী সাধারণ মানুষের স্বার্থে রাস্তায় নেমেছেন। সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখার জন্য রাস্তায় দাগ কেটেছেন এমনকি প্রতিনিয়ত বিভিন্ন হাসপাতালে ঘুরে চিকিৎসার সম্বন্ধে খোঁজ খবর নিয়েছেন। আর বিজেপির নেতারা করোনা সংক্রমণের ভয়ে ঘরের ভিতরে বসে সোশ্যাল মিডিয়ায় ভুয়ো তথ্য দিয়ে মানুষকে বিভ্রান্ত করছে। সুকান্ত পাল জানান, আমতা ২ নং ব্লকে আসা পরিযায়ী শ্রমিকদের বিভিন্ন কোয়ারেন্টাইন সেন্টারে রাখার পাশাপাশি তাদের খাওয়া দাওয়ার ব্যাবস্থা করা হয়েছে। আর বিজেপি এই কঠিন পরিস্থিতির সময়ও রাজনীতি করে যাচ্ছে।

সুকান্ত পাল জানান, আমফান ঘূর্ণিঝড়ে রাজ্যের একাধিক জায়গার পাশাপাশি আমতা ২ নং ব্লকেও ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। দলের নির্দেশে আমরা দুর্গত মানুষদের পাশে দাঁড়িয়েছি। তাদের হাতে ত্রাণ সামগ্রী তুলে দিয়েছি। এলাকার উন্নয়ন প্রসঙ্গে তিনি বলেন, রাস্তাঘাট থেকে পানীয় জল, বিদ্যুৎ থেকে স্বাস্থ্য ব্যাবস্থা সবদিক থেকেই পরিষেবা পেয়ে খুশি সাধারণ মানুষ। তিনি বলেন, হাওড়া জেলার একমাত্র দীপাঞ্চল ভাটোরার সাথে যোগাযোগের জন্য একটি ঢালাই সেতু নির্মাণের প্রক্রিয়া দ্রুত গতিতে এগোচ্ছে। বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের অনুপ্রেরণায় এবং সাংসদ অভিষেক বন্দোপাধ্যায়ের হাত ধরে আগামীদিনে এই বাংলা সোনার বাংলায় রুপান্তরিত হবে বলেও দাবি করেন জেলা যুব সভাপতি সুকান্ত পাল।

এদিনের এই সাংবাদিক সম্মেলনে অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন আমতা কেন্দ্র তৃনমূল কংগ্রেসের সভাপতি সেলিমূল আলম।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here