সাফাই কর্মীদের হাত দিয়ে উদ্বোধন হল মেদিনীপুরের ৫০ বছরের প্রাচীন খাপ্রেল বাজার সর্বজনীন পুজো

পার্থ খাঁড়া, আমাদের ভারত, পশ্চিম মেদিনীপুর, ২ অক্টোবর: বড় মাপের নেতা মন্ত্রীদের দিয়ে পুজোর উদ্বোধন করতে আমরা প্রায়ই দেখে থাকি। কিন্তু কোনো সর্বজনীন পুজো সাফাই কর্মীদের দিয়ে উদ্বোধনের ঘটনা আমাদের কখনও চোখে পড়েছে বলে সেভাবে মনে হয় না। কিন্তু এই বিরল ঘটনা দেখা গেল মেদিনীপুর শহরের প্রায় ৫০ বছরের পুরনো খাপ্রেল বাজার সর্বজনীন পুজা মন্ডপে।

পুজো কমিটির সম্পাদক কুনাল ব্যানার্জি বলেন, “এনারা এই এলাকাটাকে পবিত্র ও পরিচ্ছন্ন রাখেন। সাতজন বাসিন্দা, যার মধ্যে মহিলা পাঁচজন। পুরুষ দুজন। এনারা দীর্ঘদিন ধরেই কেউ ১০ বছর, কেউ ১২ বছর, কেউ আবার তার চেয়েও বেশি সময় ধরে এলাকা পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন করে চলেছে। এদের হাত ধরেই আমাদের এলাকা পরিছন্ন থাকে। ঝাড়ু দিয়ে সাফ করা থেকে বিভিন্ন পদ্ধতিতে এলাকা পরিচ্ছন্ন রাখে। তাই এই ধরনের পরিবেশ বন্ধুদের সম্মান দেওয়ার ইচ্ছে ছিল আমাদের এই পুরনো পুজো কমিটির সকলের। তাই তাদের দিয়ে পুজোর উদ্বোধন করাটা গৌরবের বলে মনে করেছি। তাদের হাত দিয়ে পুজোর উদ্বোধন করার পর এই উদ্বোধকদের সংবর্ধনা জানানো হয়েছে মন্ডপে।”

রীতিমত পৌরসভার সাফাই কর্মী হিসেবে, কাজের পোশাক পরেই বেনু ভুঁইঞা, রাশি ভুঁইঞা, লক্ষ্মী ভুঁইঞা, রীতা নায়েক, পার্বতী বিশুই, রাজু ভুঁইঞা ও দিলীপ ভুঁইঞারা হাজির হয়েছিলেন দুর্গাপুজোর উদ্বোধন মন্ডপে পঞ্চমীর দিন। অনেকটাই সলজ্জভাবে উদ্বোধন পর্বের অনুষ্ঠানে ইতি উতি তাকাচ্ছিলেন। অস্বস্তি অনুভব করছিলেন এভাবে তাদের সম্মান দিতে দেখে। কারণ তাদের এভাবে সম্মান কেউ দেবে তা কখনো ভাবেননি তারা। এত দিনের পুরনো পুজো, এত মানুষের উপস্থিতির মাঝে উদ্বোধক সম্মানে সম্মানিত হয়ে উদ্বোধন করার পর রীতিমতো আপ্লুত তারা।

বেনু নায়েক বলেন, আমরা সত্যিই খুব খুশি। এনাদের দেওয়া সম্মান মাথায় তুলে নিলাম। ঈশ্বর এনাদের সকলকে যেন ভাল রাখেন।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here