বাপের বাড়ি চলে আসায় স্ত্রী সহ শ্বশুর বাড়ির লোকজনকে দাঁ দিয়ে কোপ, গ্রেফতার জামাই

আমাদের ভারত, উত্তর ২৪ পরগনা, ১০ মে:
প্রতিদিনই অশান্তি। মদপ্য অবস্থায় স্ত্রীকে মারধর। তার জেরে স্ত্রী বাপের বাড়ি চলে আসে। সেই রাগে স্ত্রী সহ শ্বশুর বাড়ির লোকজনকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে এলোপাথাড়ি কোপ দেওয়ার অভিযোগ উঠল জামাইয়ের বিরুদ্ধে। বাদ যায়নি এক প্রতিবেশীও। ঘটনাটি ঘটেছে উত্তর ২৪ পরগনার বাগদা থানার হামকুড়া গ্রামে। এই অভিযোগে বাগদা থানার পুলিশ অভিযুক্ত জামাই উজ্জ্বল রায়কে গ্রেফতার করে।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রের খবর, বাগদার হামকুড়া এলাকার বাসিন্দা সুকদেব খাঁয়ের মেয়ে শৈবা রায়ের সঙ্গে ৭ বছর আগে বিয়ে হয় ওই গ্রামেরই বাসিন্দা উজ্জ্বল রায়ের। এক বছর ধরে প্রায়ই চলত অশান্তি। মদ খেয়ে শৈবাকে মারধর করত বলে অভিযোগ। তিন মাস আগে সাংসারিক অশান্তির কারণে বাবার বাড়িতে চলে আসে শৈবা। রবিবার গভীর রাতে জামাই উজ্জ্বল ধারালো দাঁ ও একটি বল্লম নিয়ে শ্বশুরবাড়িতে হাজির হয়। আচমকাই স্ত্রী, শাশুড়ি ও শ্যালককে লক্ষ্য করে এলোপাথাড়ি কোপ মারতে থাকে। চিৎকার শুনে প্রতিবেশী এক যুবক ঠেকাতে গেলে তাকেও দাঁয়ের কোপ দেয় বলে অভিযোগ। জামাইয়ের কোপের আঘাতে আহত স্ত্রী, শাশুড়ি, শ্যালক ও এক প্রতিবেশী আশঙ্কা জনক অবস্থায় ভর্তি বনগাঁ মহাকুমা হাসপাতাল।

অভিযোগ পেয়ে রবিবার সকালে বাগদা থানার পুলিশ জামাই উজ্জ্বল রায়কে গ্রেফতার করে। ধৃতকে আজ বনগাঁ মহকুমা আদালতের পাঠিয়েছে বাগদা থানা পুলিশ।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here