সর্ষের মধ্যেই ভুত! বাড়ির সোনার গয়না ও নগদ টাকা চুরি, বাবার অভিযোগে ছেলে গ্রেফতার

আমাদের ভারত, উত্তর ২৪ পরগনা, ২৫ সেপ্টেম্বর:
হাড়োয়ার মন্ডল বাড়িতে ঘটা চুরির কিনারা করল পুলিশ। তবে এই ঘটনা হাড়োয়া বাসীর চোখ কপালে তুলে দিয়েছে। ঘটনাটি ঘটেছে উত্তর ২৪ পরগনার বসিরহাট মহকুমার হাড়োয়া থানার বাছড়া মোহনপুর এলাকায়।

গত ৪৮ ঘণ্টা আগে বুধবার গৃহস্থ শশাঙ্ক মন্ডলের বাড়িতে বড়সড় চুরির ঘটনা ঘটে। জানা যায়, দুষ্কৃতীরা সাত ভরি সোনার গয়না, নগদ ৬০ হাজার টাকা চুরি করে চম্পট দিয়েছে।মন্ডল পরিবার এই ঘটনায় হাড়োয়া থানায় অভিযোগ দায়ের করে। হাড়োয়া থানার ভারপ্রাপ্ত পুলিশ আধিকারিক বাপ্পা মিত্র এই চুরির ঘটনা কিনারা করতে গিয়ে রীতিমতো হিমশিম খান। তদন্ত শেষ করতে গিয়ে দেখেন, এই চুরিতে যুক্ত মন্ডল পরিবারের বড় ছেলে।

শেষ পর্যন্ত পুলিশ জানতে পারে সর্ষের মধ্যে ভূত লুকিয়ে রয়েছে। কিছুদিন ধরে বাড়ির বড় ছেলে বছর পঁচিশের সুশোভন মন্ডল মোটর বাইক কেনার জন্য বাবা ও মায়ের উপরে চাপ দিচ্ছিল। কিন্তু মোটরবাইক দিতে নারাজ ছিল মন্ডল পরিবার। সেই কারনে বাড়ির টাকা ও গহনা চুরি করে বসে সে। পুলিশ চুরির কিনারা করতে গিয়ে দেখল বাড়ির বড় ছেলে সুশোভন সাত ভরি গহনা সোনা, নগদ ৬০ হাজার টাকা সে আলমারি ভেঙ্গে সবার অলক্ষ্যে বাড়ির পিছনে মাছধরা জাল এর মধ্যে লুকিয়ে রেখেছিল। বাবা শশাঙ্ক মন্ডল এর লিখিত অভিযোগের ভিত্তিতে শুক্রবার ভোর বেলা নিজের বাড়ি থেকে সুশোভনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। চুরি হওয়া সাত ভরি সোনার গয়না ও নগদ ৬০ হাজার টাকা উদ্ধার হয়েছে সুশোভনের কাছ থেকে। ধৃত ছেলেকে জেরা করছে হাড়োয়া থানার পুলিশ।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here