পরিযায়ী শ্রমিকদের ঘরে ফেরাতে দিচ্ছে না রাজ্য, অভিযোগ জানিয়ে অমিতের চিঠি মমতাকে

চিন্ময় ভট্টাচার্য, আমাদের ভারত, ৯ মে: গতকালই মহারাষ্ট্রে মালগাড়ির ধাক্কায় পরিযায়ী শ্রমিকদের মৃত্যুর ঘটনায় দেশজুড়ে তীব্র আলোড়নের সৃষ্টি হয়েছে। পরিযায়ী শ্রমিকদের ঘরে ফেরানোর দাবি উঠেছে দেশের প্রতিটি কোণ থেকে। তার পরদিনই পরিযায়ী শ্রমিকদের ঘরে ফেরানো নিয়ে উত্তপ্ত হয়ে উঠল রাজ্য রাজনীতি। খোদ স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ চিঠি লিখে অভিযোগ করলেন, পরিযায়ী শ্রমিকদের ঘরে ফেরাতে দিচ্ছে না রাজ্য সরকার। ওই চিঠিতে অমিত শাহের অভিযোগ,’পরিযায়ী শ্রমিকদের ঘরে ফেরানোর ট্রেন রাজ্যের সীমানা টপকাতে দিচ্ছে না পশ্চিমবঙ্গ। কেন্দ্রীয় সরকার ইতিমধ্যে দু’লক্ষ পরিযায়ী শ্রমিককে বাড়ি ফেরানোর ব্যবস্থা করেছে। পশ্চিমবঙ্গের শ্রমিকরা তাঁদের বাড়িতে ফিরতে চান। কেন্দ্রীয় সরকার সব ব্যবস্থা করলেও, পশ্চিমবঙ্গ সরকারের কাছ থেকে যে ধরনের সাহায্যের আশা করা হচ্ছিল, তেমন সাহায্য পাওয়া যায়নি। এমনকী পরিযায়ী শ্রমিকদের ট্রেন রাজ্যের সীমানা টপকাতে দিচ্ছে না পশ্চিমবঙ্গ’, বলেও গুরুতর অভিযোগ করেছেন অমিত শাহ। তাঁর তোপ,’পশ্চিমবঙ্গের পরিযায়ী শ্রমিকদের সঙ্গে এইভাবে অন্যায় করা হচ্ছে। রাজ্য সরকারের এধরনের অবস্থানে পরিযায়ী শ্রমিকরা আরও কঠিন পরিস্থিতির মুখে পড়বেন।’

এর আগে অমিত শাহ নিজে চিঠি না-লিখলেও তাঁর মন্ত্রকের সচিব একাধিক চিঠিতে করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে রাজ্যের অবস্থানকে প্রশ্নের সামনে দাঁড় করিয়েছেন। পাশাপাশি, কেন্দ্রের তরফে পশ্চিমবঙ্গে পাঠানো হয়েছে আইএমসি টিম। এমনকী কলকাতা ও হাওড়ার দায়িত্বে থাকা আইএমসি টিমের প্রধান অপূর্ব চন্দ পশ্চিমবঙ্গে করোনা পরিস্থিতি নিয়ে একের পর এক চিঠিতে রাজ্যকে দোষারোপ করে গিয়েছেন। শনিবার অমিত শাহের চিঠি, করোনা আবহে নানা বিষয়ে কেন্দ্র এবং রাজ্য সরকারের সেই সংঘাতকেই আরও তীব্র করল।

এর আগে রাজ্য বিজেপির তরফে একাধিক নেতা বার বার অভিযোগ করেছেন, পশ্চিমবঙ্গ সরকার পরিযায়ী শ্রমিকদের কিছুতেই ফিরিয়ে নিচ্ছে না। এই বিষয়ে রাজ্য বিজেপি সভাপতি দিলীপ ঘোষ আগে অভিযোগ করেছিলেন, পরিযায়ী শ্রমিকদের বিরাট তালিকা তাঁর কাছে রয়েছে। রাজ্য সরকার চাইলে তিনি দেখিয়ে দিতে পারেন যে বহু শ্রমিক এখনও ভিনরাজ্যে আটকে। তাঁদের ফেরানোর ব্যবস্থা করা হোক। লোকসভায় কংগ্রেসের নেতা অধীর চৌধুরীও স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীকে পরিযায়ী শ্রমিক ইস্যুতে চিঠি দিয়েছেন। অধীর চৌধুরী সেই চিঠিতে রাজ্য সরকারকে কটাক্ষ করে অভিযোগ করেছেন, নবান্নর কাছে সম্ভবত রাজ্যের পরিযায়ী শ্রমিকদের কোনও তালিকা নেই। সেই কারণে এই শ্রমিকদের ফেরানোর ব্যাপারে সরকার উদাসীন। এর পরই পরিযায়ী শ্রমিকদের ফেরানোর ব্যাপারে উদাসীনতার অভিযোগ এনে নবান্নে চিঠি দিলেন শাহ।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here