করোনায় পরীক্ষা সহ মৃতের সংখ্যা নিয়ে রাজ্যের রিপোর্ট স্পষ্ট নয় হাইকোর্টের কাছেও

শুভম বন্দ্যোপাধ্যায়, কলকাতা, ১৬ এপ্রিল: করোনা নিয়ে রাজ্য তথ্য গোপন করছে, রাজ্যে যথাযথ করোনা টেস্টিং হচ্ছে না, এমনটাই দাবি ছিল রাজ্যের প্রধান বিরোধী রাজনৈতিক দল বিজেপির। এবার করোনার তথ্য গোপন ও পরীক্ষার হার নিয়ে অসন্তোষ প্রকাশ করল কলকাতা হাইকোর্টও। রাজ্যকে আরও সুনির্দিষ্ট রিপোর্ট দিতে হবে বলে জানিয়েছেন হাইকোর্টের প্রধান বিচারপতির ডিভিশন বেঞ্চ। শুক্রবার ফের এই মামলা শুনবে হাইকোর্ট।

প্রসঙ্গত, রাজ্য সঠিক ভাবে তথ্য দিচ্ছে না, এই মর্মে সম্প্রতি হাইকোর্টে মামলা করেন ফুয়াদ হালিম। তাঁর হয়ে মামলাটি লড়ছেন আইনজীবী বিকাশরঞ্জন ভট্টাচার্য। সেই মামলার পরিপ্রেক্ষিতেই বৃহস্পতিবার প্রধান বিচারপতির ডিভিশন বেঞ্চে করোনায় রাজ্যের পরিস্থিতি পরিসংখ্যান দিয়ে উল্লেখ করে একটি রিপোর্ট দেয় সরকার। কিন্তু আদালত জানিয়েছে, রিপোর্টে তথ্য আরও সুনির্দিষ্ট হতে হবে।

কিন্তু আদালত স্পষ্ট জানিয়ে দেয়, করোনায় আক্রান্ত ও মৃতের সংখ্যা নিয়ে যে রিপোর্ট দেওয়া হয়েছে, তার সরকারি হিসাব ঠিক নয়। এছাড়াও করোনা পরীক্ষা কতজনের করা হয়েছে, সেই হিসাবেও গরমিল রয়েছে। সবচেয়ে বড় কথা, কে কবে কোথায় আক্রান্ত হয়েছেন, কে কবে কোথায় মারা গিয়েছেন, তার তথ্যও স্পষ্ট নয়। তাই সেই রিপোর্টের তথ্য দেখে সন্তুষ্ট হননি প্রধান বিচারপতির ডিভিশন বেঞ্চ।
আদালত রাজ্যকে আইসিএমআর ও বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার গাইড লাইন মেনে কাজ করার পরামর্শ দেয়। পাশাপাশি পুঙ্খানুপুঙ্খ বিবরণ ও তথ্য দিয়ে আবারও রিপোর্ট পেশ করার নির্দেশ দিয়েছে আদালত। শুক্রবার ফের হবে এই মামলার শুনানি।

একই সঙ্গে জানা গিয়েছে, রাজ্য বিজেপির সম্পাদক রীতেশ তেওয়ারি গত ১১ এপ্রিল করোনা আক্রান্ত ও ‌মৃত্যূর সংখ্যা নিয়ে রাজ্য সরকার তথ্য গোপন করছে বলে অভিযোগ করে কলকাতা হাইকোর্টের প্রধান বিচারপতি থোট্টাথিল ভাস্করণ নায়ারকে সম্প্রতি একটি চিঠি লিখেছিলেন। শুক্রবার করোনা সংক্রান্ত জনস্বার্থ মামলার শুনানির সঙ্গে প্রধান বিচারপতি থোট্টাথিল ভাস্করণ নায়ার ও বিচারপতি অরিজিৎ বন্দ্যোপাধ্যায়ের বেঞ্চে বিজেপির পক্ষে করা এই অভিযোগেরও শুনানি হবে।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here