রাজা জয় সিং-এর জমিতেই তৈরি হয়েছে তাজমহল, দাবি মহারানী গায়ত্রী দেবীর নাতনী দিয়া কুমারীর

আমাদের ভারত, ১১ মে:
জয়পুরের মহারাজ জয় সিং-এর
জমিতেই মুঘল সম্রাট শাহজাহান তাজমহল বানিয়ে ছিলেন বলে দাবি করলেন রাজস্থানের বিজেপি সংসদ তথা জয়পুরের মহারানী প্রয়াত গায়ত্রী দেবীর নাতনী দিয়া কুমারী। বুধবার বিজেপি সাংসদ বলেছেন, জয়পুর রাজ পরিবারের কাছে তাজমহলের এই জমির নথিও রয়েছে। আদালত চাইলে তা দেওয়া হবে। তবে, তাজমহল নির্মানের আগে সেখানে কি ছিল তা তদন্ত করা উচিত বলে তিনি মনে করেন।

বিজেপি সাংসদ বলেছেন, তাজমহল করার জন্য জমি নেওয়ার বিনিময়ে জয়পুরের রাজা জয়সিংকে মুঘল সম্রাট শাহজাহান ক্ষতিপূরণ দিয়েছিলেন। উত্তরপ্রদেশের অযোধ্যা জেলা বিজেপির মিডিয়া ইনচার্জ রজনীশ আর্কিওলজিক্যাল সার্ভে অফ ইন্ডিয়ার তত্ত্বাবধানে তাজমহলের আসল ইতিহাস অনুসন্ধানের দাবি জানিয়ে এলাহাবাদ হাইকোর্টের মামলা করেছে। আদালত সেই মামলা গ্রহণ করেছে। রজনীশের এই মামলাকে সমর্থন করেছেন দিয়া কুমারী।

তিনি বলেন, ওই সৌধ নির্মানের আগে সেখানে কি ছিল তা তদন্ত করা উচিত। জনগণের তা জানার অধিকার রয়েছে। জয়পুর পরিবারের কাছে জমির নথি রয়েছে এবং প্রয়োজন হলে সেটি আদালতকে দেওয়া হবে। সত্য অনুসন্ধান ছাড়াও তাজমহলের ভিতরে বন্ধ থাকা ২০টি কক্ষ খোলার দাবি জানানো হয়েছে মামলায়। তাজমহলের অন্দরে থাকা এই কুড়িটি কক্ষ তালা বন্ধ রয়েছে এবং কাউকে সেখানে প্রবেশ করতে দেওয়া হয় না। এটা বিশ্বাস করা হয় যে ওই কক্ষগুলিতে হিন্দু দেবতার মূর্তি এবং হিন্দু ধর্মগ্রন্থ রয়েছে।

বেশ কয়েকটি হিন্দুত্ববাদী সংগঠন দাবি করেছে, তেজো মহালয় নামে একটি শিব মন্দিরের উপর তাজমহল করা হয়েছে। বছর কয়েক আগেই সেই সূত্রে তাজমহলের জমিতে জয়পুর রাজপরিবারের অধিকার সংক্রান্ত তথ্য সামনে এসেছিল। রাজস্থানের উদয়পুরের রানারা মুঘলদের বিরুদ্ধে লড়াই চালালেও জয়পুরের রাজপরিবার বরাবরই ছিল মুঘল ঘনিষ্ঠ। রাজা মানসিং সম্রাট আকবরের অন্যতম সেনাপতি ছিলেন। সেই সূত্রেই যমুনার তীরে ওই জমি মানসিংহের হাতে এসেছিল বলে জয়পুর রাজ পরিবারের দাবি। উত্তরাধিকার সূত্রে জমির পেয়েছিলেন রাজা জয়সিং। এরপর সেই জমি শাহজাহান তার কাছ থেকে নেন বলে দাবি করেছেন দিয়া।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here