এক শ্রেণির কর্মী ও নেতার দল বিরোধী কাজ নিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ কোচবিহারের তৃণমূল নেতার

নিজস্ব প্রতিনিধি, কোচবিহার, ৮ জুলাই: দলের মধ্যে থেকে কেউ কেউ দলের ক্ষতি করছে বলে বিস্ফোরক দাবি করলেন কোচবিহারের তৃণমূল কংগ্রেস নেতা তথা কোচবিহার পৌরসভার বোর্ড অফ অ্যাডমিনিস্ট্রেশনের চেয়ারপার্সন ভূষণ সিং। এই ব্যাপারে তিনি ইতিমধ্যে জেলা নেতৃত্বকে জানিয়েছেন, প্রয়োজনে রাজ্য নেতৃত্বকেও জানাবেন বলে জানাবেন তিনি। ভূষণ সিং এর এই বক্তব্য ঘিরে ইতি মধ্যেই শোরগোল পড়েছে জেলার রাজনীতিতে। তাঁর অভিযোগ খতিয়ে দেখার আশ্বাস দিয়েছেন জেলা তৃণমূল কংগ্রেসের কার্যকারি সভাপরি পার্থ প্রতীম রায়। যদিও মিডিয়ার সামনে ভূষণবাবুর এই অভিযোগ করা নিয়ে যথেষ্টই বিব্রত পার্থ প্রতীম রায়।

আজ সাংবাদিকদের শহরের উন্নয়ন নিয়ে বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তরদিচ্ছিলেন ভূষণ সিং। এরই মাঝে তিনি বলেন, মুখ্য মন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি যে উদ্যোগ নিয়ে নিয়ে দলকে এই জায়গায় নিয়ে এসেছেন, কিছু স্বার্থাম্বেষী লোক দলের সেই ভাবমূর্তি খারাপ করছে। এই বিষয়টা আমরা দেখছি। ইতিমধ্যেই কয়েকজনকে শনাক্ত করা হয়েছে। এই ধরনের স্বার্থান্মেষী লোকেদের দল থেকে যদি না সরিয়ে দেওয়া যায় তবে তারা দলের ক্ষতি করবে। এই বিষয়ে তিনি দলের জেলা সভাপতি বিনয় কৃষ্ণ বর্মনকে জানিয়েছেন। রাজ্য নেতৃত্বকেও তিনি চিঠি লিখে এই বিষয়ে জানাবেন বলে দাবি করেছেন তিনি।

তিনি আরো অভিযোগ করেন, জেলার নেতা তথা উত্তরবঙ্গ উন্নয়নমন্ত্রী রবীন্দ্র নাথ ঘোষ, জেলা সভাপতি তথা রাজ্যের মন্ত্রী বিনয় কৃষ্ণ বর্মন , জেলা কার্যকারি সভাপতি পার্থপ্রতীম রায়ের নামে কুৎসা রটাচ্ছে দলেরই এক অংশ। যদিও ভূষন সিং এর এই মন্তব্য করার পেছনে নিশ্চয়ই কোনও কারন কাছে বলেই মনে করেন জেলা তৃণমূল কংগ্রেসের কার্যকারি সভাপতি পার্থ প্রতীম রায়। তিনি বলেন, “ভূষন সিং আমাদের দলের বর্ষীয়ান নেতা। তিনি যখন বলেছেন নিশ্চয়ই এর সারবত্তা আছে, তবে আমি অনুরোধ করব তিনি যেন এই কথা মিডিয়াকে না বলে দলের বৈঠকে বলেন।“

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here