পুরুলিয়া জেলায় মোট চিকিৎসাধীন শিশুর সংখ্যা বেড়ে ২৭৯, উদ্বেগে পরিজনরা

সাথী দাস, পুরুলিয়া, ১৯ সেপ্টেম্বর: পুরুলিয়ায় হাসপাতাল চত্বরে রোগীর পরিবারের বিক্ষোভ দেখা গিয়েছে আজ। চিকিৎসা পরিষেবায় গাফিলতি, পর্যাপ্ত বেডের অভাব সহ নানান অভিযোগে সরব শিশুর পরিবাররা। তাঁদের অভিযোগ, শিশুবিভাগের
চিকিৎসকেরা ঠিকমতো শিশুদের দেখছেন না। শিশুদের আদৌ চিকিৎসা হচ্ছে কি না সেটা জানতে দেওয়া হচ্ছে না মায়েদের। হাসপাতাল পরিদর্শনে এসে তাঁদের সঙ্গে সুর মিলিয়ে স্বাস্থ্য দপ্তরের বিরুদ্ধে চিকিৎসা ব্যবস্থার গাফিলতি ও পরিকাঠামোর অভাবের বিস্তর অভিযোগ তুললেন পুরুলিয়ার বিজেপি বিধায়ক সুদীপ মুখার্জি। শিশু বিভাগের পরিকাঠামো এবং বেডের অভাবের কথা স্বীকারও করলেন পুরুলিয়া মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতালের সুপার সুকমল বিষয়ী।

রাজ্যের বিভিন্ন জেলার সাথে সাথে পুরুলিয়ার দেবেন মাহাতো মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতালের শিশু বিভাগে প্রতিদিন বাড়ছে জ্বরে আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা। পুরুলিয়া জেলায় মোট চিকিৎসাধীন শিশুর সংখ্যা ১৭৯। রঘুনাথপুর সুপার স্পেশালিটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ৬৫ জন এবং ২১৪ জন রয়েছে পুরুলিয়া সদর হাসপাতালের শিশু বিভাগে। ওই বিভাগে বেড সংখ্যা ৮০ থেকে বাড়িয়ে ১১৬ করা হয়েছে। জেলার বিভিন্ন প্রান্ত থেকে জ্বরে আক্রান্ত শিশুদের চিকিৎসার জন্য নিয়ে আসা হচ্ছে সদর হাসপাতালে। সেখানে শিশু ভর্তি রয়েছে ২১৪ জন। জেলার গ্রামীণ হাসপাতাল, ব্লক প্রাথমিক স্বাস্থ্য কেন্দ্রে অসুস্থ শিশুদের চিকিৎসা করার ভরসা না পেয়েই এই মনোভাব পরিবারগুলির।

এই বিষয়ে উদ্বেগ নিয়ে পুরুলিয়া সদর হাসপাতালের চিকিৎসাধীন শিশুদের দেখতে যান পশ্চিমাঞ্চল উন্নয়ন বিভাগ দফতরের মন্ত্রী সন্ধ্যারানী টুডু। পরিদর্শনের পর তিনি দাবি করে বলেন, “চিকিৎসা ঠিক ঠাক হচ্ছে। চিন্তার কোন কারণ নেই।”

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here