সোশ্যাল সাইটে পোস্ট করায় যুবতীকে প্রকাশ্যে পা ধরে ক্ষমা চাওয়ার অভিযোগ উঠল তৃণমূল নেতার বিরুদ্ধে

ছবি: অভিযুক্ত কাউন্সিলর।

আমাদের ভারত, মালদা, ২৫ জুলাই: এলাকায় ময়লা জমেছে। এই অভিযোগ করে সোশ্যাল সাইটে পোস্ট করায়, এক যুবতীকে প্রকাশ্য রাস্তায় পা ধরে ক্ষমা চাওয়ানোর অভিযোগ উঠল ইংরেজবাজার পৌরসভার তিন নম্বর ওয়ার্ডের তৃণমূলের বিদায়ী কাউন্সিলর পরিতোষ চৌধুরীর বিরুদ্ধে। আতঙ্কে ওই যুবতী ইংরেজবাজার থানার পুলিশের শরণাপন্ন হয়েছেন। অভিযোগ অস্বীকার করেছেন কাউন্সিলর। তাঁর পাল্টা অভিযোগ তাঁকে কলুষিত করার জন্য তার বিরোধীরা চক্রান্ত করে ওই যুবতীকে ব্যবহার করে তার নামে কুৎসা রটাচ্ছে। তিনিও ওই যুবতীর বিরুদ্ধে সাইবার ক্রাইমে অভিযোগ জানিয়েছেন। এই ঘটনায় ব্যাপক চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে।

ওই যুবতী অভিযোগ করেন মাসখানেক ধরেই তাদের এলাকায় ময়লার জল জমে রয়েছে। দুর্বিষহ হয়ে গেছে বসবাস করা। বারবার কাউন্সিলরকে জানিয়ে কোনো লাভ না হওয়ায় তিনি সোশ্যাল সাইটে কাউন্সিলরকে অভিযুক্ত করে ঘটনাটি প্রকাশ্যে আনেন। এর পরই ওই কাউন্সিলর, তাঁর পরিবারের সদস্যরা ও দল-বল মিলে ওই যুবতীর বাড়িতে চড়াও হয়। প্রথমে তাঁকে হুমকি দেওয়া হয়। প্রকাশ্যে ক্ষমা না চাইলে এলাকায় বসবাস করতে দেওয়া হবে না। বাধ্য হয়ে ওই যুবতী রাস্তার ওপর তাঁর কাছে পা ধরে ক্ষমা চান। এরপরই সে ইংরেজবাজার থানায় ওই কাউন্সিলরের বিরুদ্ধে লিখিত অভিযোগ দায়ের করে।

যদিও বিদায়ী কাউন্সিলর পরিতোষ চৌধুরী বলেন, সম্পূর্ণ ভিত্তিহীন অভিযোগ। বিরোধীরা চক্রান্ত করে ওই যুবতীকে ব্যবহার করে তাঁর নামে সোশ্যাল সাইটে কুৎসা করেছে। তিনি কেবল এর প্রতিবাদ করেছেন। এই কারণেই তাঁর নামে এ ধরনের মিথ্যা অভিযোগ আনা হয়েছে। তিনি এ নিয়ে সাইবার ক্রাইম এ অভিযোগ করেছেন।

গোটা ঘটনায় সরব হয়েছে জেলা বিজেপি নেতৃত্ব। বিজেপির মালদা জেলার সহ-সভাপতি অজয় গাঙ্গুলি বলেন, তৃণমূলের আমলে তালিবানি রাজত্ব চলছে। অবিলম্বে পুলিশ প্রশাসনকে ব্যবস্থা নিতে হবে।

গোটা ঘটনায় চরম অস্বস্তিতে জেলা তৃণমূল নেতৃত্ব। জেলা তৃণমূল কংগ্রেস সভানেত্রী মৌসম বেনজির নূর বলেন এ ধরনের ঘটনা দল বরদাস্ত করবে না। গোটা ঘটনার রাজ্য নেতৃত্বকে জানানো হবে।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here