পুরুলিয়ায় সংবিধান দিবস পালনে রাজনীতির ছোঁয়ায় রাতারাতি বদলানো হল স্থান

সাথী দাস, পুরুলিয়া, ২৪ নভেম্বর: সংবিধান দিবস পালনে রাজনীতির ছোঁয়া লাগল পুরুলিয়ায়। বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশন পুরুলিয়ার সিধো কানহো বিরসা বিশ্ববিদ্যালয়কে সংবিধান দিবস পালনের জন্য নির্দেশ দেয়। ভারত সরকারের তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রকের অন্তর্গত সেন্ট্রাল অফ কমিউনিকেশনের বাঁকুড়া শাখার ব্যবস্থাপনা ও আর্থিক সহযোগিতায় বিশ্ব বিদ্যালয় চত্বরেই দিনটি মহা সমারোহে পালন করার কথা ছিল। প্রায় রাতারাতি বদলে যায় স্থান। অজানা কারণেই বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ অনুষ্ঠানের স্থান বদলে ফেলে।

সেটা জানানো হয় আয়োজক সেন্ট্রাল অফ কমিউনিকেশনের বাঁকুড়া শাখার প্রচার কর্মকর্তা রমা মণ্ডলকে। তিনি জানান, “১৫ নভেম্বর বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশন পুরুলিয়ার সিধো কানহো বিরসা বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষকে এই অনুষ্ঠান পালনের নির্দেশ দেয়। বিশ্ব বিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ স্থান পরিবর্তনের খবর পর্যন্ত আমাকে জানায়নি। আমি ২১ তারিখ ফোনে অন্য কারণে যোগাযোগ করলে তখন স্থান পরিবর্তনের বিষয়টি জানতে পারি। এতে প্রস্তুতিতে অসুবিধা হয়েছে।”

এই বিষয় নিয়ে বিশ্ব বিদ্যালয়ের উপাচার্য, রেজিস্ট্রারের সঙ্গে ফোনে যোগাযোগের চেষ্টা করা হয়, কিন্তু ফোন তোলেননি তাঁরা।

এই নিয়ে জেলা বিজেপির সহ সভাপতি গৌতম রায় বলেন, “এতে পরিষ্কার প্রমাণ তৃণমূল দলটা সংবিধান মানে না। তাই সংবিধান দিবস উদযাপনে অনীহা। তারা হস্তক্ষেপ করে শিক্ষাঙ্গনকে কালিমালিপ্ত করছে।”
শেষ পর্যন্ত সংবিধান দিবস পালিত হল লালপুর মহাত্মা গান্ধী কলেজে। ভারত সরকারের তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রকের অন্তর্গত সেন্ট্রাল অফ কমিউনিকেশনের বাঁকুড়া শাখার উদ্যোগে কলেজ চত্বরে করম নাচ, পাতা নাচ সহ বিভিন্ন সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে পালিত হয় সংবিধান দিবস। তিন দিনের অনুষ্ঠানে আজ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে কলেজের ছাত্রছাত্রীরা ও এনএসএস ইউনিটের সদস্যরা অংশগ্রহণ করে। আয়োজক সংস্থার প্রচার কর্মকর্তা রমা মণ্ডল বলেন, “কলেজ কর্তৃপক্ষকে নিয়ে কোনও অভিযোগ নেই। অধ্যাপকরা সহযোগিতা করছেন।” এদিন অনুষ্ঠান স্থলে এই দিনটি সম্বলিত প্রধান মন্ত্রীর ছবি সম্বলিত ব্যানারটি টাঙাতে দেয়নি কলেজ কর্তৃপক্ষ বলে জানান প্রচার কর্মকর্তা।

সংবিধান দিবস প্রতি বছর ২৬ নভেম্বর পালিত হয়। এই দিনে ১৯৪৯-প্রত্যেক বছর দিনটি ভারতের সংবিধান গৃহীত হওয়ার স্মরণে পালন করা হয়। এটি ২৬ জানুয়ারি ১৯৪৯-এ আইনত প্রয়োগ করা হয়েছিল। ৯ ই নভেম্বর ২০১৫ সালে ডঃ বি আর আম্বেদকরের ১২৫ তম জন্মবার্ষিকীর বছরব্যাপী উদযাপনের সময় ভারত সরকার ২৬ শে নভেম্বরকে সংবিধান দিবস হিসাবে ঘোষণা করে। ভারত সরকার ২০১৫ সালে একটি গেজেট বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে ২৬ নভেম্বরকে সংবিধান দিবস হিসাবে ঘোষণা করেছিল। দিবসটির লক্ষ্য সংবিধানের গুরুত্ব ছড়িয়ে দেওয়া এবং ভারতীয় সংবিধানের জনক
বিআর আম্বেদকরের চিন্তাভাবনা ও ধারণা ছড়িয়ে দেওয়া।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here