মুখবেঁধে ঘর থেকে তুলে নিয়ে গিয়ে গণধর্ষণ, বিক্ষোভে উত্তাল হাড়োয়া

আমাদের ভারত, বসিরহাট, ২৩ জুলাই: মুখ বেধে রাতের অন্ধকারে ঘর থেকে বের করে নিয়ে গিয়ে গণধর্ষণ করার অভিযোগ প্রতিবেশী চার যুবকের বিরুদ্ধে। বুধবার রাতে ঘটনাটি ঘটেছে উত্তর ২৪ পরগনার বসিরহাট মহকুমার হাড়োয়া থানার গোপালপুর এক নম্বর গ্রাম পঞ্চায়েতের মুন্সিঘেরি এলাকায়। দুষ্কৃতীদের গ্রেফতারের দাবিতে বিক্ষোভে ফেটে পড়েন এলাকার মানুষ। টায়ার জ্বালিয়ে পথ অবরোধ করে তারা।

পরিবার সূত্রের খবর, বছর ২৮ এর গৃহবধূ বৃহস্পতিবার ভোর বেলা বাড়ি থেকে নিখোঁজ হয়ে যায়। তারপর তাঁকে হাত-পা বাঁধা অচৈতন্য অবস্থায় দেখতে পায় মেছো ঘেরির কর্মীরা। তারাই পরিবারের লোককে খবর দিলে ঘটনাস্থলে স্বামী উৎপল পাত্র সহ গ্রামবাসীরা ওই গৃহবধূকে উদ্ধার করে প্রথমে হাড়োয়া গ্রামীণ হাসপাতালে নিয়ে যান। অবস্থার অবনতি হওয়ায় তাঁকে স্থানান্তরিত করা হয় বসিরহাট জেলা হাসপাতালে। পরিবারের অভিযোগ রাতে তাঁকে মুখ বেঁধে নিয়ে যাওয়া হয়েছিল।

ঘটনাস্থলে হাড়োয়া থানার পুলিশ গিয়ে তদন্ত শুরু করেছে। ওই মহিলার বয়ান অনুযায়ী চারজনের বিরুদ্ধে হাড়োয়া থানায় গণধর্ষণের অভিযোগ হয়েছে। অভিযুক্তরা সকলেই গ্রাম ছেড়ে পালিয়ে যায়।

মহিলার স্বামী উৎপল পাত্র হাড়োয়া বাজারে এক মাছের কাটায় কাজ করেন। উৎপল পাত্রের দাবি, পুলিশ পূর্ণাঙ্গ তদন্ত করুক। গ্রামবাসীরা ওই চার দুষ্কৃতীকে গ্রেপ্তারের দাবি তুলে রাস্তা অবরোধ করে। টায়ার জ্বালিয়ে ক্ষোভও বিক্ষোভ দেখায়। তাদের দাবি, অবিলম্বে পুলিশ তাদের গ্রেফতার করুক। পুরো বিষয়টি নিয়ে তদন্তে নেমেছে হাড়োয়া থানার পুলিশ।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here