ফিরতে না পারা শ্রমিকরাই মুখ্যমন্ত্রীকে পরিযায়ী করে ছাড়বেন: ভারতী ঘোষ

আমাদের ভারত, মেদিনীপুর, ১৭ মে: রাজ্যে ফিরতে চাওয়া পরিযায়ী শ্রমিকদের সম্মানের সঙ্গে ফেরানোর ব্যবস্থা করুন নইলে তারাই একদিন আপনাকে  পরিযায়ী করে দেবেন বলে মুখ্যমন্ত্রীকে কটাক্ষ করলেন  রাজ্য বিজেপি নেত্রী ভারতী ঘোষ। দেশের বিভিন্ন প্রান্তে আটকে থাকা পরিযায়ী শ্রমিকদের ফেরাতে গড়িমসি করার অভিযোগ তুলে রবিবার এক ভিডিও বার্তায় এভাবেই মুখ্যমন্ত্রীকে বিঁধেছেন বিজেপি নেত্রী।

তিনি বলেন, বিভিন্ন সংবাদ মাধ্যম জানাচ্ছে এ রাজ্যের তেইশ জন পরিযায়ী শ্রমিক সরকারিভাবে বাড়ি ফেরানোর কোনো ব্যবস্থা না দেখে নয়ডা থেকে লখনৌ হয়ে এক হাজার তিনশো পঞ্চাশ কিলোমিটার রাস্তা হাঁটতে শুরু করেছেন। কারণ তারা বুঝতে পেরেছেন পশ্চিমবঙ্গ থেকে কোনো ট্রেন আসবে না। এভাবে দেশের বিভিন্ন রাজ্যে আটকে রয়েছেন এই রাজ্যের হাজার হাজার শ্রমিক। অনেকে বিভিন্ন জায়গা থেকে গাড়ি ভাড়া করে রাজ্যে ফেরার চেষ্টা করছেন। কিন্তু স্বাস্থ্য পরীক্ষা ইত্যাদির অজুহাত দেখিয়ে তাদের ঢুকতে দেওয়া হচ্ছে না। সীমান্তে আটকে রাখা হচ্ছে। খড়গপুর থেকে চিচিড়া সীমান্তে এরকম প্রচুর গাড়ি আটকে রাখা হয়েছে বলে অভিযোগ করে তিনি প্রশ্ন তুলেছেন, বাইরের রাজ্য থেকে ফিরতে চাওয়া এই শ্রমিকরা কারা? তারা তো বাংলার এবং আমাদের ঘরের লোক। এ রাজ্যে কাজ না পেয়ে দুটো অন্নসংস্থানের জন্য তারা বাইরে গিয়েছিলেন।

ভারতী ঘোষ বলেন, বিরোধী নেত্রী থাকাকালীন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেছিলেন তৃণমূল ক্ষমতায় ফিরলে ছ’মাসের মধ্যে শিল্প করে দেব। কিন্তু সিঙ্গুর থেকে টাটাদের শিল্প সংস্থাকে তাড়িয়ে পরবর্তীকালে আর কিছুই করতে পারেননি। ফলে এ রাজ্যের লক্ষ লক্ষ মানুষ বাইরের রাজ্যে যাচ্ছেন কাজের সন্ধানে। তারা সেই সমস্ত রাজ্যে অর্থ উপার্জন করে এ রাজ্যে পাঠিয়ে রাজ্যেরই উপকার করছেন। বাইরের রাজ্যে থাকা এই লক্ষ লক্ষ শ্রমিক ভোটের সময় যখন ফিরে আসেন তাদের উদ্দেশ্যে মুখ্যমন্ত্রী বলেন, ২৯৪ টা আসনেই আমাকে দেখে ভোট দেবেন। বাংলার সেই ছেলে মেয়েদের আজ আনতে তিনি অস্বীকার করছেন। মুখ্যমন্ত্রীকে তারা বারবার আবেদন জানিয়েও কোনো আশা দেখছেন না।

ভারতী ঘোষ বলেন, রাজ্য সরকার তিরিশ দিনের ট্রেনের একটি তালিকা প্রকাশ করেছে। তাতে অনেক জায়গায় পড়ে থাকা শ্রমিকদের ফেরানোর বিষয়টি অস্পষ্ট রয়েছে। তাছাড়াও যারা আসবেন তাদের জন্য এখানে কি কি ধরনের, কতগুলি কোয়ারেন্টাইন সেন্টারের ব্যবস্থা করেছেন, তাদের কি ধরনের স্বাস্থ্য পরিষেবা দেওয়া হবে এ বিষয়ে কোনো কিছু জানানো হচ্ছে না। বিজেপি নেত্রীর অভিযোগ, কয়েকশো কোটি টাকা ক্লাবগুলোকে মজা মস্তি করার জন্য দেওয়া হচ্ছে অথচ স্বাস্থ্য পরিষেবার বিষয়টি স্পষ্ট করা হচ্ছে না।

তিনি জানান, গত ৫ মে প্রধানমন্ত্রীকে তিনি একটি চিঠি পাঠিয়ে বলেছেন, পরিযায়ী শ্রমিকরা আমাদের মতই মানুষ। বাড়ি ফিরতে চাওয়াটা তাদের মৌলিক অধিকারের মধ্যেই পড়ে। শেষ পর্যন্ত জানা গেছে, প্রতিদিন তিনশ ট্রেন চালিয়ে বিভিন্ন রাজ্যে আটকে থাকা শ্রমিকদের বাড়ি ফেরাতে উদ্যোগ নিয়েছে কেন্দ্র সরকার। কিন্তু আমাদের রাজ্যের ক্ষেত্রে দেখা গেছে এই সরকার মাত্র সাতটি ট্রেন চেয়েছে, যেখানে ঝাড়খণ্ডের মত একটি ছোট রাজ্য চুয়াল্লিশটি ট্রেন চেয়ে রাজ্যের শ্রমিকদের ফেরাতে উদ্যোগ নিয়েছে। ভারতী ঘোষ বলেন, পরিযায়ী শ্রমিকদের ফেরানোর ক্ষেত্রে এ রাজ্যের সরকার যতই টালবাহানা করুক না কেন তারা কিন্তু ফিরে আসবেন এবং সময়ের সঙ্গে সঙ্গে তারাই একদিন মুখ্যমন্ত্রীকে পরিযায়ী করে দেবেন।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here