সব নাগরিকের স্বাস্থ্য সংক্রান্ত রেকর্ডের ডিজিটাইজেশন হবে

আমাদের ভারত, ৪ আগস্ট: স্বাধীনতা দিবসে সম্ভবত দেশের সব নাগরিকের জন্য ন্যাশনাল ডিজিটাল হেলথ মিশন ঘোষণা করতে চলেছেন প্রধানমন্ত্রী। এই ডিজিটাল হেলথ মিশন এর অধীনে দেশের সম্পূর্ণ ডিজিটাল হেলথ ইকোসিস্টেম গড়ে তোলা হবে বলে জানিয়েছে কেন্দ্র। এই প্রকল্পের অধীনে দেশের প্রত্যেক নাগরিককে ব্যক্তিগত স্বাস্থ্য আইডি দেওয়া হবে।

এই মিশনের অধীনে সব ভারতীয় নাগরিকের স্বাস্থ্য সংক্রান্ত রেকর্ডের ডিজিটাইজেশন হবে। সমস্ত ডাক্তার ও স্বাস্থ্য কর্মীর নামও নথিভুক্ত করতে হবে এখানে। ইতিমধ্যে কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভায় ন্যাশনাল ডিজিটাল হেলথ মিশনের প্রস্তাব অনুমোদিত হয়েছে। আগামী সপ্তাহের মধ্যেই এটি চূড়ান্ত অনুমোদন পেয়ে যাবে বলে আশা করা হচ্ছে। স্বাধীনতা দিবসের ভাষণএই হেলথ মিশনের কথা ঘোষণা করতে পারেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী বলে মনে করা হচ্ছে। কেন্দ্র সরকারের এক উচ্চপদস্থ আধিকারিক সূত্রে এমনটাই খবর।

দেশের স্বাস্থ্য ব্যবস্থার এই ডিজিটাল প্লাটফর্মে থাকবে মূলত চারটি বৈশিষ্ট্য। (এক) হেলথ আইডি, (দুই ) ব্যক্তিগত হেলথ রেকর্ড, (তিন) ডিজিটাল ডাক্তার এবং (চার)স্বাস্থ্য পরিষেবার নথিভুক্তকরণ। পরবর্তীতে এর সঙ্গে ই–ফার্মেসি এবং টেলিমেডিসিন পরিষেবা যুক্ত হবে বলে জানানো হয়েছে। এই স্বাস্থ্য প্রকল্পে গাইডলাইন তৈরীর কাজ চলছে এখন। ৪৭০ কোটি টাকা বাজেট বরাদ্দ হয়েছে এই প্রকল্পের জন্য। তবে আগামী দিনে আরো ৪০০ কোটি টাকা এক্ষেত্রে লাগতে পারে বলে অনুমান করা হচ্ছে।

এই স্বাস্থ্য মিশনে অংশগ্রহণ করা বাধ্যতামূলক এখনই করা হবে না বলে সিদ্ধান্ত হয়েছে। কোনও ব্যক্তি এই অ্যাপ ডাউনলোড করবেন কি করবেন না তা তার ব্যক্তিগত সিদ্ধান্তের ওপরই ছাড়া হবে। একইভাবে কোনও হাসপাতাল বা কোনও চিকিৎসক স্বাস্থ্য পরিষেবা সংক্রান্ত বিস্তারিত তথ্য আপলোড করবেন কিনা সেটাও সেই হাসপাতাল বা চিকিৎসকের ব্যক্তিগত সিদ্ধান্ত হবে। তবে আশা করা হচ্ছে এই অ্যাপের উপযোগিতা এতটাই ভালো হতে চলেছে যে বেশির ভাগ মানুষই এই মিশনে অংশগ্রহণ করতে চাইবেন।

ন্যাশনাল হেলথ অথরিটি চিফ এক্সিকিউটিভ ইন্দু ভূষণ জানিয়েছেন, ন্যাশনাল ডিজিটাল হেলথ মিশন দেশের স্বাস্থ্য পরিষেবা কে উন্নত ও স্বচ্ছ করবে। একইসঙ্গে রাষ্ট্রপুঞ্জে উন্নত স্বাস্থ্যপরিসেবার যে সূচক নির্ধারণ করেছে তা অর্জন করতেও ভারত অনেকটা এগিয়ে যাবে এর ফলে। আয়ুষ্মান ভারতের ইম্প্লেমেন্টিং এজেন্সি নেশনাল হেলথ অথরিটি এই প্লাটফর্ম তৈরি করেছে অ্যাপ এবং ওয়েবসাইট এর মাধ্যমে। এটিতে পাওয়া যাবে বিশেষ স্বাস্থ্য পরিষেবার ক্ষেত্রে। এটি একটি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ উল্লেখযোগ্য পদক্ষেপ হতে চলেছে।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here