বারুইপুরে মাদক ও প্রচুর টাকা এবং এক মহিলা সহ ধৃত তিন

আমাদের ভারত, বারুইপুর, ১৬ অক্টোবর: দুর্গাপুজোর আগেই বড়সড় সাফল্য বারুইপুর জেলা পুলিশের। গোপনসূত্রে খবর পেয়ে বারুইপুর পুলিশ জেলার স্পেশাল অপারেশান গ্রুপ ও বারুইপুর থানার পুলিশ যৌথভাবে তল্লাশি অভিযান চালিয়ে পাঁচ লক্ষ টাকা বাজার মূল্যের প্রায় চারশো গ্রাম হেরোইন ও নগদ প্রায় ছয় লক্ষ টাকা উদ্ধার করল। এই ঘটনায় এক মহিলা সহ মোট তিনজনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। বারুইপুর থানার অন্তর্গত বেতবেরিয়া রেল স্টেশান লাগোয়া এলাকা থেকে এদের গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

পুলিশ সূত্রের খবর, বেশকিছু দিন ধরেই বারুইপুর পুলিশ জেলার স্পেশাল অপারেশান গ্রুপের কাছে খবর আসছিল যে এই এলাকায় হেরোইন পাচার চক্র যথেষ্ট সক্রিয় হয়ে উঠেছে। এলাকায় মাদক দ্রব্যের ব্যবসা ও চলছে রমরমিয়ে। সেই খবর অনুযায়ী ঘটনার তদন্তে নামে পুলিশ। তদন্তে নেমে বৃহস্পতিবার বিকেলে শিউলি বিবি, জনাব আখন্দ ও মহসিন লস্কর নামে তিনজনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। পুলিশের প্রাথমিক অনুমান শিউলি বিবি হচ্ছেন এই হেরোইনের মূল ডিলার। তাঁর কাছ থেকে জনাব আখন্দ হেরোইন নিয়ে বিভিন্ন খরিদ্দারের কাছে সাপ্লাই করতো। মহসিন লস্কর জনাবের কাছ থেকে হেরোইন নিয়ে অন্যত্র পাচার করতো।
ধৃতদের কাছ থেকে মোবাইল ফোন ও একটি মোটর বাইক ও উদ্ধার করেছে পুলিশ। শিউলি বিবির বাড়ি ক্যানিং থানার তালদিতে হলেও সে এই হেরোইন ব্যবসার জন্য বেতবেরিয়া স্টেশানের কাছে থাকত বলে জানিয়েছে পুলিশ। অন্য দুই ধৃতের বাড়ি জীবনতলা থানার নারায়ণপুর ও বাঁশড়া এলাকায়। ধৃতদের বিরুদ্ধে এন ডি পি এস অ্যাক্টে মামলা দায়ের করে ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে বারুইপুর থানার পুলিশ। ধৃতদের শুক্রবার বারুইপুর মহকুমা আদালতে তোলা হয়। এই মাদক ব্যবসার সাথে আর কে বা কারা জড়িত সে বিষয়ে তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ। বারুইপুর পুলিশ জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ইন্দ্রজিৎ বসু বলেন, “বেশ কিছুদিন ধরেই আমাদের কাছে খবর ছিল মাদক ব্যবসা এই এলাকায় চলছিল। এদিন মাদক পাচারের সময় বারুইপুর থানার পুলিশ দুষ্কৃতীদের হাতে নাতে ধরে ফেলে। এদের কাছ থেকে প্রচুর মাদক ও নগদ টাকা উদ্ধার হয়েছে। এই কারবারে আর কারা কারা জড়িত সে বিষয়ে তদন্ত চলছে।”

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here