উলুবেড়িয়ায় তৃণমূল সিপিএম সংঘর্ষ, বোমাবাজি, আহত ১

আমাদের ভারত, হাওড়া, ৯ আগস্ট: তৃণমূল এবং সিপিএমের দফায় দফায় সংঘর্ষে উত্তপ্ত হয়ে উঠল উলুবেড়িয়ার ধুলাসিমলা গ্রাম পঞ্চায়েতের মৌবেশিয়া পশ্চিমপাড়া। রবিবার সকালের এই ঘটনায় ব্যাপক বোমাবাজির অভিযোগ ওঠে উভয় পক্ষের বিরুদ্ধে। ঘটনায় এক সিপিএম নেতা আহত হয়েছে বলে দাবি করেছে। এলাকায় উত্তেজনা থাকায় পুলিশ পিকেট বসানো হয়েছে।

স্থানীয় সূত্রে খবর, সম্প্রতি ধুলাসিমলা গ্রাম পঞ্চায়েতে আমফানের যে ৩২ জনের তালিকা প্রকাশ করা হয় তাতে দেখা যায় ২ জন ছাড়া বাকি সকলের নাম প্রভাব খাটিয়ে তালিকাভুক্ত করা হয়েছে। গ্রামবাসীদের অভিযোগ, এলাকার পঞ্চায়েত সদস্যার স্বামী স্থানীয় তৃণমূল নেতা হান্নানের মদতে এই তালিকা প্রস্তুত করা হয়েছে। এরপরেই এই তালিকা নিয়ে গ্রামবাসীরা উলুবেড়িয়া মহকুমা শাসক, ব্লক প্রশাসনের কাছে অভিযোগ জানায়। এদিকে গ্রামের পরিস্থিতি উত্তপ্ত হয়ে ওঠায় হান্নান আত্মগোপন করে। অভিযোগ, শুক্রবার হান্নান গ্রামে ফেরার পর নতুন করে উত্তেজনা ছড়ায়। শুক্রবার থেকেই হান্নান বহিরাগতদের নিয়ে গ্রামে বোমাবাজি শুরু করে। রবিবার সকালেও দু’পক্ষের মধ্যে বোমাবাজি চলার সময় সিপিএমের এক নেতাকে লক্ষ্য করে বোমা ছোড়ার অভিযোগ ওঠে তৃণমূলের বিরুদ্ধে। ঘটনায় ওই সিপিএম নেতা আহত হলে পরিস্থিতি অগ্নিগর্ভ হয়ে ওঠে। ক্ষুব্দ গ্রামবাসী হান্নানের বাড়ি ভাঙ্গচুর করে বলে অভিযোগ।পরে উলুবেড়িয়া থানার বিশাল পুলিশবাহিনী ঘটনাস্থলে পৌঁছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

সিপিএম নেতা গৌতম পুরকাইতের অভিযোগ, যেহেতু গ্রামবাসীরা আমফানের তালিকা নিয়ে প্রশাসনের কাছে অভিযোগ জানিয়েছিল সেই কারণে হান্নান বহিরাগতদের নিয়ে গ্রামে বোমাবাজি করেছে।

যদিও স্থানীয় তৃণমূল নেতৃত্বের দাবি, গাছ কাটা নিয়ে একটি পারিবারিক বিবাদকে কেন্দ্র করে এই বোমাবাজি। সিপিএম ইচ্ছাকৃতভাবে এই ঘটনায় রাজনীতির রং লাগাতে চাইছে।

বিষয়টি নিয়ে তৃণমূলের হাওড়া গ্রামীণ জেলা সভাপতি পুলক রায় বলেন, সিপিএম তার পুরনো অভ্যাস বশত গ্রামে বোমাবাজি করছে। আসলে মা মাটি মানুষের সরকারের উন্নয়ন এরা সহ্য করতে পারছে না বলেও দাবি করেন পুলক রায়।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here