বোমাবাজি ঘিরে তৃণমূলের গোষ্ঠী দ্বন্দ্ব, উত্তেজনা রায়গঞ্জের গৌড়ি গ্রাম পঞ্চায়েত এলাকায়

আমাদের ভারত, উত্তর দিনাজপুর, ১৯ জানুয়ারি:
বোমাবাজি ঘিরে তৃণমূলের গোষ্ঠী দ্বন্দ্বের অভিযোগে ফের উত্তেজনা রায়গঞ্জ থানার গৌড়ি গ্রাম পঞ্চায়েত এলাকায়। অভিযোগ, স্থানীয় তৃণমূল নেতা মহঃ রাহুল ইসলামের বাড়িতে গভীর রাতে দুষ্কৃতিরা বোমাবাজি করে। এই ঘটনার নেতৃত্বে স্থানীয় তৃণমূল নেতা রেজায়ুল হক রয়েছে বলে অভিযোগ। পালটা রেজায়ুল হকের দাবি তার সাথে এলাকার জনগণ থাকায় হিংসাত্মক ভাবেই রেজাউলকে বদনাম করার জন্যই এই ঘটনা ঘটানো হয়েছে। ঘটনার তদন্তে নেমেছে রায়গঞ্জ থানার পুলিশ।

শনিবার গভীর রাতে রায়গঞ্জ থানার গৌড়ি গ্রাম পঞ্চায়েত এলাকায় রুদ্রখন্ড গ্রামে স্থানীয় তৃণমূল নেতা মহঃ রাহুল ইসলামের বাড়িতে দুষ্কৃতীরা বোমাবাজি করে পালিয়ে যায়৷ নিজেকে তৃণমূল কংগ্রেসের গৌড়ি অঞ্চলের সভাপতি পরিচয় দিয়ে মহঃ রাহুল ইসলাম রায়গঞ্জ থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন। রাহুল ইসলামের দাবি এই বোমাবাজির ঘটনা তার দলের লোকেরাই করিয়েছে, যার নেতৃত্বে আছে দলের স্থানীয় পঞ্চায়েত সমিতির সদস্য রেজায়ুল হক। রাহুল ইসলাম আরও দাবি করেন পঞ্চায়েতের দুর্নীতির বিরুদ্ধে সরব হওয়ার জন্যই তাকে লক্ষ্য করে আক্রমন করা হচ্ছে।

অভিযুক্ত স্থানীয় তৃণমূল কংগ্রেস নেতা তথা রায়গঞ্জ পঞ্চায়েত সমিতির সদস্য রেজায়ুল হক অভিযোগ অস্বীকার করার পাশাপাশি পাল্টা দাবি করেছেন, আমাকে বদনাম করার উদ্দেশ্যেই এই ঘটনা সাজানো হয়েছে৷ এলাকার জনসাধারণ আমার সাথে আছে তাই আমাকে ফাঁসানোর চক্রান্ত হচ্ছে৷ পাশাপাশি মহঃ রাহুল ইসলাম বর্তমানে অঞ্চল তৃণমূল কংগ্রেসের সভাপতি পদেও নেই বলে দাবি করেছেন রেজায়ুল।
ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে রায়গঞ্জ থানার পুলিশ।
তবে এই ঘটনায় অস্বস্তিতে পড়েছে জেলা তৃণমূল কংগ্রেস।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here