তৃণমূল ভেন্টিলেশনে চলে গেছে: জয় বন্দ্যোপাধ্যায়

পাপ্পা গুহ, আমাদের ভারত, হাওড়া, ১১ আগস্ট: তৃণমূল ভেন্টিলেশনে চলে গেছে, প্রশান্ত কিশোর যতই তার স্ট্যাটেজি দিয়ে তৃণমূলকে বাঁচানোর চেষ্টা করুক না কেন তাতে কোনও লাভ হবে না।বাংলায় বিজেপির আসা কেউ আটকাতে পারবে না বলে দাবি করলেন বিজেপির কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য জয় বন্দ্যোপাধ্যায়। মঙ্গলবার পাঁচলার সিদ্ধেশ্বর বাজারে জন্মাষ্টমী অনুষ্ঠানে যোগ দিতে এসে এই কথা বলেন জয়।

এদিন জয় বলেন, তৃণমূল দিনের পর দিন পিছিয়ে যাচ্ছে এবং বিজেপি এগিয়ে যাচ্ছে। আর এটা মানুষের মন থেকে তৃণমূলের মুছে যাওয়ার ফল। জয় বলেন, আমরা এখন ২০১০ এর প্রতিচ্ছবি দেখতে পাচ্ছি। সেইসময় সিপিএমকে সরিয়ে মানুষ যেভাবে তৃণমূলকে এনেছিল সেইরকম ২০২১ এ মানুষ তৃণমূলকে সরিয়ে বিজেপিকে আনবে। এদিন জয় দাবি করেন, অঙ্কের দিক থেকে প্রশান্ত কিশোরের বাবা অমিত শাহ। অমিত শাহের যা বুদ্ধি আছে এবং নরেন্দ্র মোদীর যা ক্যারিশমা আছে তাতে বাংলায় বিজেপির আসা কেউ আটকাতে পারবে না।

এদিন জয় বলেন, প্রশান্ত কিশোর আসলে কোনও ফ্যাক্টর নয়, তবে অবশ্যই ফ্যাক্টর ছিলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। কারণ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে দেখে তৃণমূল চলে এবং ২০১১ এবং ২০১৬ সালে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে দেখে মানুষ ভোট দিয়েছিলেন। আর এখন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের আত্মবিশ্বাস কতটা তলানীতে ঠেকেছে যে ৫০০ কোটি টাকা দিয়ে প্রশান্ত কিশোরকে আনতে হয়েছে। এর আগের বিধানসভা নির্বাচনে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেছিলেন, ২৯৪টি আসনেই তিনি দাঁড়িয়েছেন আর এখন সেই আত্মবিশ্বাস নেই বলেই প্রশান্ত কিশোরের হাত ধরছেন। তাঁর দাবি, প্রশান্ত কিশোরের কোনও ক্ষমতাই নেই যে বিজেপিকে ঠেকাতে পারবে। জয় বলেন, এই বছরের শেষে অমতি শাহ রাজ্যে এসে ৪/৫ দিন করে থাকবেন এবং নিজের হাতে সবকিছু পরিচালনা করবেন। তিনি বলেন, অমিত শাহ এর আছে প্রশান্ত কিশোর নাস্তানাবুদ হয়ে যাবে কারণ অমিত শাহ একজন বুদ্ধিমান বিচক্ষণ ব্যাক্তি।
এদিনের এই অনুষ্ঠানে জয় ভক্তদের মধ্যে পায়েস ভোগ ও মাস্ক বিতরণ করেন।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here