থানাগুলিকে পার্টি অফিসে পরিণত করে পুলিশকে সঙ্গে নিয়ে খুনের রাজনীতি চালিয়ে যাচ্ছে তৃণমূল: সায়ন্তন

আমাদের ভারত, ঝাড়গ্রাম, ২২ জুন:সোমবার ঝাড়গ্রামে গৃহ সম্পর্ক অভিযানে এসে বিজেপির রাজ্য সাধারণ সম্পাদক সায়ন্তন বসু বলেন, রাজ্যে যেভাবে একের পর এক বিজেপি কর্মী আক্রান্ত ও খুন হচ্ছেন অথচ বর্তমান সরকার কোনও পদক্ষেপ নিচ্ছে না এর খেসারত দিতে হবে তৃণমূলকে। দাঁতন থানা জ্বালিয়ে দেওয়ার হুমকির অভিযোগে সেখানকার পুলিশ তাঁর বিরুদ্ধে স্বতঃপ্রণোদিত হয়ে মামলা করেছে, এ বিষয়ে তাঁর প্রতিক্রিয়া জানতে চাইলে সায়ন্তন বসু সাংবাদিকদের বলেন, দাঁতনে বিজেপি কর্মী পবন জানার হত্যার বিরুদ্ধে থানা ঘেরাও কর্মসূচিতে কি স্লোগান দেওয়া হয়েছিল সেটা বড় কথা নয়। বড় কথা হল, পবন জানার খুনিদের বিরুদ্ধে পুলিশ কি ব্যবস্থা নিয়েছে। সায়ন্তন বসু বলেন, এপর্যন্ত ১০৪ জন বিজেপি কর্মী এ রাজ্যে খুন হয়েছেন। অথচ কোনো ক্ষেত্রেই কোনো পদক্ষেপ নেওয়া হয়নি।

সাংবাদিকরা প্রশ্ন করেন, মুখ্যমন্ত্রী বলেছিলেন বদলা নয় বদল চাই, অথচ দিলীপ ঘোষ বলছেন বদলা এবং বদল দুটোই চাই। আপনি কি দিলীপ ঘোষের বক্তব্যকে সমর্থন করেন? এই প্রশ্নের উত্তরে সায়ন্তন বসু বলেন, ‘বদলা নয় বদল চাই’ এটা মুখ্যমন্ত্রীর সম্পূর্ণ মিথ্যা কথা। তিনিই ক্ষমতায় এসে বলেছিলেন ইঞ্চিতে ইঞ্চিতে বদলা নেব এবং তা তিনি প্রতিনিয়ত নিচ্ছেন। দিলীপ ঘোষ, সায়ন্তন বসুদের নামে প্রতিদিন একটা করে মামলা চাপানো হচ্ছে। ১০৪ জন বিজেপি কর্মীকে খুন করা হয়েছে, এটা কি বদলা নয়? প্রশ্ন তোলেন বিজেপির রাজ্য সাধারণ
সম্পাদক।


 
দিলীপ ঘোষের বক্তব্য প্রসঙ্গে তিনি বলেন, এখন যারা শ্রীচৈতন্য সাজছেন তারাই তো থানাগুলিকে পার্টি অফিসে পরিণত করে পুলিশকে সঙ্গে নিয়ে খুনের রাজনীতি চালিয়ে যাচ্ছেন। কিন্তু এভাবে বেশিদিন চলতে পারে না। চরম অত্যাচারের সময় ভগবান শ্রীকৃষ্ণ শিশুপালকে শাস্তি দিয়েছিলেন। তৃণমূলও সে ভাবে শাস্তি পাবে। তবে বিজেপি হিংসায় বিশ্বাস করে না।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here