তৃণমূল নেতার উপর হামলা ভাঙড়ে

আমাদের ভারত, দক্ষিণ ২৪ পরগণা, ১৭ মে: এলাকার এক তৃণমূল নেতা তথা স্থানীয় গ্রাম পঞ্চায়েতের উপপ্রধানের উপর হামলার ঘটনায় উত্তেজনা ছড়াল এলাকায়। ঘটনাটি ঘটেছে দক্ষিণ ২৪ পরগণার ভাঙড় থানার অন্তর্গত বোদরা বাজার এলাকায়। এলাকার বোদরা অঞ্চল তৃণমূল কংগ্রেসের সভাপতি সাদেকুল দফতরিকে খুনের চেষ্টা করে দুষ্কৃতীরা। তাকে লক্ষ্য করে গুলিও চালায়। যদিও একটুর জন্য প্রাণে বাঁচেন ঐ তৃণমূল নেতা। এই ঘটনায় স্থানীয় মানুষজন তাড়া করে তিনজন অভিযুক্তকে ধরে ফেলে। ঘটনাকে কেন্দ্র করে এলাকায় ব্যাপক উত্তেজনা রয়েছে।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে খবর, ভাঙড়ে পার্টি অফিসে ঢুকে তৃণমূল নেতাকে লক্ষ্য করে গুলি চালায় একদল দুষ্কৃতী। শনিবার রাতে ঘটনাটি ঘটে ভাঙড়ের বোদরা বাজারে। বোদরা গ্রাম পঞ্চায়েতের উপপ্রধান তথা বোদরা অঞ্চল সভাপতি সাদেকুল দফতরিকে লক্ষ্য করে দুষ্কৃতিরা গুলি চালায় বলে অভিযোগ। শনিবার সন্ধ্যায় পাড়া বৈঠক সেরে বোদরা বাজারে পার্টি অফিসে বসে দলীয় কার্যকলাপ নিয়ে আলোচনা করছিলেন উপপ্রধান সহ আরও চার তৃণমূল নেতা। সেই সময় জনা চারেক দুষ্কৃতি এসে গুলি চালায়। অল্পের জন্য রেহাই পায় তৃণমূল নেতা সাদেকুল। ঘটনা জানাজানি হতেই এলাকার সাধারণ মানুষ এক হয়ে ঘটনাস্থলেই তিনজন দুষ্কৃতিকে ধরে ফেলে। পালিয়ে যায় আর এক দুষ্কৃতি। পরে ভাঙড় থানার পুলিশ ধৃত তিন জনকে নিজেদের হেফাজতে নিয়েছে।

পরিকল্পিত ভাবে খুন করার চেষ্টা করা হয়েছে বলে জানান ক্যানিং পূর্বের বিধায়ক সওকাত মোল্লা। ঘটনাস্থল থেকে একটি আগ্নেয়াস্ত্র, এক রাউন্ড গুলি ও একটা ভোজালি উদ্ধার করেছে পুলিশ। ঘটনার পিছনে কে বা কারা আছে তার পূর্ণাঙ্গ তদন্ত শুরু করেছে ভাঙড় থানার পুলিশ। শওকত বলেন, “এই ঘটনার পিছনে বিজেপির হাত রয়েছে। পরিকল্পনা করেই আমাদের দলের সক্রিয় কর্মীকে খুনের চেষ্টা করছিল তারা। পুলিশ তদন্ত করে ঘটনার সত্যতা উদ্ঘাটন করুক”।

যদিও এ বিষয়ে বিজেপির রাজ্য কমিটির সদস্য সুনিপ দাস বলেন, “তৃণমূলের গোষ্ঠী কোন্দলের ফল এটি। বিজেপিকে বদনাম করার জন্য আমাদের দিকে অভিযোগের আঙুল তুলছেন নেতারা”।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here