চন্দ্রকোনায় ব্রিটিশ আমলের ফাঁসি মঞ্চ ঘিরে গড়ে উঠবে পর্যটন কেন্দ্র

আমাদের ভারত, মেদিনীপুর, ২৩ ডিসেম্বর: ইংরেজদের তৈরি চন্দ্রকোনার ফাঁসি মঞ্চকে পর্যটনকেন্দ্র করার প্রশাসনিক উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। এজন্য চন্দ্রকোনা ২ ব্লক প্রশাসন ও স্থানীয় বসনছড়া গ্রাম পঞ্চায়েতের পক্ষ থেকে দশ লক্ষ টাকা বরাদ্দ করা হয়েছে। পঞ্চায়েত প্রধান সুতপা মান্ডি, বিডিও শাশ্বত লাহিড়ী এবং পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি হীরালাল ঘোষ জানিয়েছেন, ফাঁসিডাঙ্গা নামে পরিচিত এলাকার এই ফাঁসি মঞ্চে ব্রিটিশরা ভারতীয় স্বাধীনতা আন্দোলনকারীদের ফাঁসি দিত। ব্রিটিশদের এই স্মৃতি স্মারকের টানে এখানে প্রচুর পর্যটক আসেন।

হীরালাল বাবু জানান, তদানীন্তন সময় এই এলাকার কৃষকদের নীল চাষে বাধ্য করা হতো। প্রতিবছর নীল চাষে ব্যাপক ক্ষতি হওয়ায় নীলকর সাহেবদের প্রতি বিদ্রোহী হয়ে উঠতেন চাষিরা। স্থানীয় কৃষক যুগল সর্দার ও কিশোর সরদারের নেতৃত্বে কৃষক বিদ্রোহ ছড়িয়ে পড়ে গোটা এলাকায়। এই পাইক বিদ্রোহ দমনে নির্বিচারে গুলি চালিয়ে বহু কৃষককে মেরে ফেলা হয়। যেসব কৃষক ধরা পড়েছিলেন তাদের এই ফাঁসিতে ঝুলিয়ে দেওয়া হয়েছিল। এখানেই ফাঁসি হয় পাইক বিদ্রোহের স্থানীয় নেতা যুগল সরদার এবং তার ভাই কিশোর সরদারের। তারপর অগণিত বিদ্রোহীকে এখানে ফাঁসি দেওয়া হয়েছিল। একটি উঁচু ঢিবির উপর অবস্থিত এই ফাঁসির মঞ্চ আজও ফাঁসিডাঙ্গা নামে এবং পবিত্র স্থান হিসেবে পরিচিত। ব্রিটিশ শাসকদের অত্যাচারের নিদর্শন এই ফাঁসি মঞ্চকে পর্যটন কেন্দ্র হিসেবে গড়ে তোলার মূল উদ্যোক্তা বসনছড়া গ্রাম পঞ্চায়েত এখানে একটি বিনোদন পার্ক ও ফাঁসির মঞ্চটিকে পাঁচিল দিয়ে ঘিরে দেওয়ার পরিকল্পনা নিয়েছে বলে বিডিও শাশ্বত লাহিড়ী জানিয়েছেন।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here