গলসিতে তৃণমূল বিজেপি সংঘর্ষ, আহত ১০

আমাদের ভারত, গলসি, ২২ জুন: বচসা থেকে মারামারি। এরপরেই তৃণমূল-বিজেপি সংঘর্ষে উত্তপ্ত হয়ে উঠল পূর্ব বর্ধমান জেলার গলসির পারাজ এলাকা। চলে লাঠি, রড, কুড়ুল নিয়ে দুই পক্ষের হামলা। ঘটনায় দুই পক্ষের দশ জন আহত হয়েছেন। আহতদের গলসির পুরষা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এদের মধ্যে তিন জনকে বর্ধমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তরিত করা হয়েছে।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে ঘটনার সূত্রপাত রবিবার দুপুর নাগাদ। রবিবার বিজেপি নেতা কর্মীরা গলসির পারাজ এলাকায় গৃহ সম্পর্ক অভিযানের জন্য বাড়ি বাড়ি যাচ্ছিলেন। সেই সময় রাস্তার পাশে টাঙানো বিজেপির দলীয় পতাকা তৃণমূল কর্মীরা ছিঁড়ে ফেলে দেয় বলে অভিযোগ। এক বিজেপি কর্মীর চায়ের গুমটিও উলটে ফেলে দেওয়া হয় বলে বিজেপি অভিযোগ করে। বিষয়টি নিয়ে বিজেপির পক্ষ থেকে গলসি থানায় অভিযোগ জানানো হয়।

সোমবার ঘটনার প্রতিবাদে বিজেপি নেতা কর্মীরা পারাজ মোড়ে জড়ো হলে দুই পক্ষের মধ্যে ঝামেলা থেকে সংঘর্ষ শুরু হয়। দুই পক্ষই লাঠি, রড নিয়ে হামলা চালানোর অভিযোগ তোলে একে অপরের বিরুদ্ধে। খবর পেয়ে গলসি থানার পুলিশ পরিস্থিতি সামাল দেয়।

আহত তৃণমূল কর্মী রিপন শেখ বলেন, সোমবার সকালের দিকে যখন পারাজ মোড়ে যাই। সেই সময় বিজেপির দুষ্কৃতীরা লাঠি, রড, শাবল নিয়ে আমাদের উপর হামলা চালায়। আমাকে মেরে পা ভেঙ্গে দেওয়া হয়। খবর পেয়ে তৃণমূলে অন্যান্য কর্মীরা জড়ো হলে দুই পক্ষের মধ্যে মারামারি বেধে যায়। আমি কোনওরকমে প্রাণে বাঁচি।

আহত বিজেপি কর্মী সমরেশ নায়েক বলেন, রবিবার তৃণমূলের দুষ্কৃতীরা এক বিজেপি সমর্থকের গুমটি ভাঙ্গচুর করেছিল। আজ আমরা সেই ঘটনার প্রতিবাদ করেছিলাম। সেই সময় তৃণমূলের দুষ্কৃতীরা কুড়ুল, শাবল, কাটারি, লাঠি নিয়ে এসে আমাদের উপর হামলা চালায়। আমাদের বেধড়ক মারধর করা হয়। ঘটনায় বিজেপির চার পাঁচ জন কর্মী আহত হয়েছে। আমাদের প্রাণে মেরে ফেলার হুমকিও দেওয়া হয়।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here