বাগনানে মহিলা খুনের ঘটনায় অভিযুক্ত নেতা কুশ বেরার স্ত্রীকে দল থেকে বহিস্কার করল তৃণমূল

আমাদের ভারত, হাওড়া, ২৬ জুন: স্বামীর পর এবার স্ত্রীকে দল থেকে বহিস্কার করল তৃণমূল। বাগনানের গোপালপুরে মেয়ের সম্ভ্রম রক্ষা করতে গিয়ে মায়ের মৃত্যুর ঘটনায় আগেই স্থানীয় তৃণমূল নেতা কুশ বেরাকে দল থেকে বহিস্কার করেছিল তৃণমূল। আর এবার একই রাস্তায় হেঁটে তার স্ত্রী বাগনান ২ নং গ্রাম পঞ্চায়েতের সদস্যা রমা বেরা’কেও দল থেকে বহিস্কার করল তৃণমূল। শুক্রবার বিকেলে উলুবেড়িয়া প্রেস ক্লাবে এক যৌথ সাংবাদিক সম্মেলনে দলের এই সিদ্ধান্তের কথা জানান তৃণমূলের হাওড়া গ্রামীণ জেলা সভাপতি পুলক রায় ও বাগনানের বিধায়ক অরুনাভ সেন।

এদিন বিধায়ক পুলক রায় বলেন, ঘটনার ২৪ ঘন্টার মধ্যেই অভিযুক্তদের গ্রেফতার প্রমাণ করে এই রাজ্যে আইনের সুশাসন আছে। বিধায়ক পুলক রায় বলেন, উন্নাওয়ের কিশোরী ধর্ষণের ঘটনায় অপরাধীদের ধরতে যেখানে আদিত্যনাথ সরকারের এক বছর সময় লেগেছিল সেখানে রাজ্যের আইন শৃঙ্খলা প্রমাণ করে  মা-মাটি-মানুষের সরকার কতটা তৎপর। এদিন তিনি বলেন, যেকোনো মৃত্যু দুঃখজনক কিন্তু এই মৃত্যুকে নিয়ে যেভাবে রাজনীতি হচ্ছে এবং এলাকাকে অশান্ত করার পরিকল্পনা হচ্ছে সেটাও মেনে নেওয়া যায় না। পুলক রায় বলেন, তৃণমূল মৃতার পরিবারের পাশে আছে এবং থাকবে। এছাড়াও এই ঘটনায় তাদের সমস্ত রকম আইনি সাহায্য দেওয়া হবে বলে জানান বিধায়ক পুলক রায়।

অন্যদিকে এদিন বিধায়ক অরুণাভ সেন বলেন, কুশ বেরা দলের কোনও পদে ছিল না একজন সাধারণ কর্মী। তিনি বলেন, তৃণমূল কোনও অন্যায়ের সঙ্গে আপস করে না সেই কারণেই ঘটনার পরেই কুশ বেরা ও রমা
বেরাকে দল থেকে বহিষ্কার করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। অরুণাভ সেন বলেন, মৃতের বাড়িতে পারোলৌকিক কাজ চলছে সেটা মিটে গেলে আমরা মৃতার বাড়িতে যাব। তিনি বলেন, বৃহস্পতিবার বিক্ষোভ চলাকালীন এক যুবক আহত হওয়ার ঘটনায় আমরা যেমন পুলিশকে বলেছি অভিযুক্তকে দ্রুত গ্রেফতার করতে অন্যদিকে সেই রকম যারা আইন নিজের হাতে তুলে নিয়ে ঘরবাড়ি ভাঙ্গচুর করেছে তাদের বিরুদ্ধেও আইনি পদক্ষেপ নিতে বলেছি। এদিন বিধায়ক অরুণাভ সেন অভিযোগ করেন, বিরোধীরা এলাকায় অশান্তি পাকানোর পরিকল্পনা করছে আমরা দলীয় কর্মীদের কোনওরকম প্ররোচনায় পা না দেওয়ার ব্যাপারে সতর্ক করেছি।

অপরদিকে এদিন বিকালে এই ঘটনার প্রতিবাদে সিপিএমের ছাত্র যুব মহিলা সংগঠনের পক্ষ থেকে বাগনানে বিক্ষোভ দেখানো হয়। এদিন বিক্ষোভকারীরা ৬ নং জাতীয় সড়কে বাগনান আমতা সংযোগস্থল অবরোধের পাশাপাশি বাগনান থানার সামনে অবস্থান-বিক্ষোভ করে।

প্রসঙ্গত, গত মঙ্গলবার মেয়ের সম্ভ্রম রক্ষা করতে গিয়ে মায়ের মৃত্যু হওয়ার ঘটনার পরেই সংবাদ শিরোনামে চলে আসে বাগনান। শাসক দলকে কোণঠাসা করতে ময়দানে নামে বিরোধী রাজনৈতিক দলগলি। আর বিরোধীদের পাল্টা জবাব দিতেই শুক্রবার সাংবাদিক সম্মেলন করে তৃণমূল কংগ্রেস তাদের অবস্থান স্পষ্ট জানিয়ে দেওয়ায় বিরোধীদের আন্দোলন অনেকটাই হ্রাস পাবে বলে ধারণা রাজনৈতিক মহলের।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here