বালুরঘাট বিধানসভায় তৃণমূলকে হারিয়েছে তৃণমূল, পুরভোটের আগে অভিষেক ব্যানার্জিকে বিমান দাসের খোলা চিঠি ভাইরাল সোশ্যাল মিডিয়ায়

পিন্টু কুন্ডু, বালুরঘাট, ১৯ জানুয়ারি: বিজেপি নয়, বিধানসভা ভোটে তৃণমূলই তৃণমূলকে হারিয়েছে। অভিষেক ব্যানার্জিকে এমনই খোলা চিঠি বালুরঘাট টাউন তৃণমূল সভাপতির। বুধবার সকাল থেকে বালুরঘাট শহর তৃণমূল সভাপতির প্যাডে লেখা ওই চিঠি ভাইরাল হয় সোশ্যাল মিডিয়ায়। আর যাকে ঘিরে তুমুল হৈ চৈ পড়ে গোটা দক্ষিণ দিনাজপুর জেলায়। পুরভোটের আগে দলের বেশকিছু নেতৃত্বদের বিরুদ্ধে সর্বভারতীয় সভাপতিকে লেখা ওই খোলা চিঠি সামনে আসতেই রীতিমতো অস্বস্তিতে পড়েছে ঘাসফুল শিবির। যদিও বালুরঘাট টাউন তৃণমূল সভাপতি বিমান দাসের দাবি, পুরভোটের আগে ভুয়ো একটি চিঠি ছড়িয়ে দলের ভিতরে গোষ্ঠীদ্বন্দ্ব উস্কে দিয়ে ফায়দা লুটতে চাইছে বিরোধীরা।

৭ জানুয়ারি বালুরঘাট টাউন তৃণমূল সভাপতি বিমান দাসের প্যাডে অভিষেক ব্যানার্জিকে লেখা ওই চিঠিতে উল্লেখ করা হয়েছে এক প্রাক্তন মন্ত্রী ও তার পুত্রবধূর বিভিন্ন কর্মকান্ডের বিষয়। সোশ্যাল মিডিয়াতে ইতিমধ্যেই ভাইরাল হওয়া ওই চিঠিতে উল্লেখ করা হয়েছে গত বিধানসভা ভোটে দলের ভিতরের গোষ্ঠী দ্বন্দ্বের বিষয়ও। যেখানে টাউন তৃণমূল সভাপতি বিমান দাস অভিষেক ব্যানার্জিকে লিখেছেন, আমি ছয়মাস ধরে এই পদে নিযুক্ত হয়েছি। বিগত দিনে বালুরঘাট শহরে যারা দলের দায়িত্বে ছিলেন তারা সঠিকভাবে কাজ না করায় বালুরঘাটে তৃণমূলের খারাপ ফল হয়েছে। শহরের প্রাক্তন তৃণমূল সভাপতি প্রাক্তন মন্ত্রী শঙ্কর চক্রবর্তীর অনুগামী হিসাবেই পরিচিত, তাই বিধানসভা নির্বাচনে শঙ্কর চক্রবর্তী টিকিট না পাওয়ায় তিনি উলটো ভোট করেন।

আগামীতে খুব অল্প সময়ের মধ্যেই পৌরসভা নির্বাচন। বালুরঘাটে সমস্ত তৃণমূল কংগ্রেস নেতৃত্ব প্রকাশ্যে একে অপরের বিরুদ্ধে তোপ দাগছেন। বালুরঘাট পৌরসভার চেয়ারম্যান হওয়ার লড়াইয়ে একে অপরকে কাদা ছুড়তেও কেউ পিছপা হচ্ছেন না, বিশেষ করে জেলা তৃণমূল কংগ্রেস সভানেত্রী প্রদীপ্তা চক্রবর্তী প্রকাশ্যে বলে বেড়াচ্ছেন যে তিনি আগামী দিনে বালুরঘাট পুরসভার চেয়ারম্যান হতে চলেছেন। বেশকিছু ওয়ার্ডে তিনি আলাদা একটা গোষ্ঠী তৈরি করার চেষ্টাও করছেন। প্রদীপ্তা চক্রবর্তী প্রাক্তন মন্ত্রী শঙ্কর চক্রবর্তীর পুত্রবধূ তাই প্রশাসনের পূর্ণ সমর্থন তার দিকে থাকে। আপনার কাছে বিশেষ অনুরোধ আপনি যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণ করুন। দলের সর্বভারতীয় সভাপতিকে বিমান দাসের লেখা ওই চিঠি সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হতেই পুরভোটের আগে কিছুটা অস্বস্তিতে পড়েছে তৃণমূল শিবির। আর যাকে ঘিরে কার্যত প্রকাশ্যে এসেছে দলের গোষ্ঠীকোন্দলের চিত্রও।

যদিও বালুরঘাট টাউন তৃণমূল সভাপতি বিমান দাসের দাবি, ওই চিঠিটি সম্পূর্ণ ফেক। তার প্যাড নকল করে এই কাজটি করা হয়েছে। চেয়ারে বসেই শহরে দলের সমস্ত গোষ্ঠীদ্বন্দ্ব মিটিয়ো ফেলেছেন তিনি। কিন্তু পুরভোটের আগে একটি নকল চিঠি ছড়িয়ে বিরোধীরা গোষ্ঠীদ্বন্দ্বকে জিইয়ে ফায়দা তোলার চেষ্টা করছে। এব্যাপারে দলের নেতৃত্বদের সাথে কথা বলে আইনি পদক্ষেপ গ্রহণ করবেন তিনি।

জেলা তৃণমূলের মহিলা সভানেত্রী প্রদীপ্তা চক্রবর্তী অবশ্য জানিয়েছেন, বিষয়টি সম্পর্কে তিনি সম্পূর্ণ অজানা। সাংবাদিকের মুখ থেকেই প্রথম শুনছেন একথা। যার প্যাডে লেখা চিঠি তিনিই এই বিষয়টি স্পষ্ট করতে পারবেন। তবে তৃণমূল একটি সর্বভারতীয় দল, দলের সিদ্ধান্তই শেষ কথা। এখানে কে কি চিঠি লিখলো তাতে কিছু যায় আসে না।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here