পারিবারিক অশান্তির জের, নদীতে ঝাঁপ দিয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা দুই বোনের

আমাদের ভারত, উত্তর ২৪ পরগনা, ২২ নভেম্বর:
নদীতে ঝাঁপ দিয়ে একসঙ্গে আত্মত্যার চেষ্টা করল দুই বোন। বৃহস্পতিবার বসিরহাটের মিনাখাঁ থানা এলাকার ঘটনায় স্থানীয় বাসিন্দারা তাদের উদ্ধার করে তড়িঘড়ি হাসপাতালে ভর্তি করেন। দু’জনের অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় সেখান থেকে তাদের কলকাতার হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়েছে। তবে কী কারণে তারা আত্মহত্যার পথে হাঁটল, তা নিয়ে তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ।

ঘড়ির কাঁটায় তখন প্রায় ১১টা। মিনাখাঁ থানা এলাকার বিদ্যাধরী নদীর উপর মালঞ্চ সেতু। সেখানেই দাঁড়িয়ে ছিল দুই বোন লাভলি খাতুন, সাবিনা ইয়াসমিন। লাভলি দ্বাদশ শ্রেণির ছাত্রী। সাবিনা প্রথম বর্ষে পড়াশোনা করে। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, আচমকাই দু’জন হাত ধরাধরি করে সেতুর থেকে একেবারে সোজা নদীতে ঝাঁপ দেয়। তা দেখেই থমকে দাঁড়িয়ে পড়েন পথচলতি মানুষজন। নদীতে পড়ে ডুবতে থাকার সঙ্গে সঙ্গে দু’জন চিৎকার করতে থাকে। তখন আশেপাশের মানুষজন নদীতে ঝাঁপ দিয়ে দুই বোনকে উদ্ধার করে।

পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, দুই বোনকে উদ্ধারের পর স্থানীয় হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। কিন্তু তাদের শারীরিক অবস্থার অবনতি হওয়ায় কলকাতায় স্থানান্তরিত করা হয়। তাদের বাড়ি ন্যাজাট থানার মঠবাড়ি এলাকায়।

প্রতিবেশী এক যুবকের কথায়, ওই দুই বোনের মধ্যে দারুণ সম্পর্ক ছিল। বাবা, মায়ের সঙ্গে অশান্তি করে এমন ঘটনা ঘটাতে পারে। প্রাথমিক তদন্তে পুলিশের অনুমান, পারিবারিক অশান্তির জেরে আত্মহত্যার চেষ্টা করেছে দুই বোন। সঠিক কারণ জানতে তদন্ত শুরু করেছে মিনাখাঁ থানার পুলিশ। কেন মেয়েরা এমন একটা ঘটনা ঘটাল, সে বিষয়ে নিশ্চিত নয় পরিবারও। এখন দুই মেয়ের দ্রুত আরোগ্য কামনা করছেন সদস্যরা।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here