জলপাইগুড়ি পুর এলাকায় ঢুকে পড়ল দুটি দলছুট হাতি, প্রশাসনের পক্ষ থেকে জারি ১৪৪ ধারা

আমাদের ভারত, জলপাইগুড়ি, ১৪ নভেম্বর: জলপাইগুড়ি শহরে দিনভর আটকে দুটি দলছুট হাতি। শহর লাগোয়া বিভিন্ন গ্রামে আগে হাতি ঢুকলেও এই প্রথম জলপাইগুড়ি পুরসভা এলাকায় ঢুকলো হাতি। গজরাজকে দেখতে সাধারণ মানুষের ভিড় উপচে পড়েছে এলাকায়। কোনও প্রকার অপ্রীতিকর ঘটনা এড়াতে জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে জারি করা হয়েছে ১৪৪ ধারা৷ ঘটনার স্থলে রয়েছে বনদপ্তর ও জেলা পুলিশের আধিকারিকরা৷ লোকালয়ে হাতি ঢোকাকে কেন্দ্রকরে এলাকায় চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে।

রবিবার ভোর তিনটে নাগাত সবার প্রথমে শহরের রাজবাড়ি পাড়া এলাকায় স্থানীয় বাসিন্দারা দুটি হাতিকে দেখতে পায়। হাতি দুটি রাজবাড়ি পাড়া এলাকা থেকে বিশ্ববাংলা কোভিড হাসপাতালের ভেতরে ঢুকে যায়। সেখান থেকে হাসপাতালের সিমানা প্রাচীর ভেঙ্গে করলা নদীপার হয়ে নেতাজী পাড়া হয়ে রাজ্য সড়ক ধরে হাতি দুটি ২২নং ওয়ার্ডের কলেজ পাড়া এলাকায় একটি জঙ্গলে আশ্রয় নিয়েছে। সকাল থেকেই করলা নদীর ধারে আটকে রয়েছে হাতি দুটি। হাতি দেখতে শহরের পাশাপাশি জেলা বিভিন্ন এলাকা থেকে প্রচুর মানুষ ভিড় জমায়। প্রশাসনের পক্ষ থেকে ২২নং ওয়ার্ড ও ২১নং ওয়ার্ডের বেশ কিছু এলাকায় ১৪৪ধারা জারি করা হয়েছে প্রশাসনের পক্ষ থেকে।

খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে ছুটে আসেন বিভাগীয় বনাধিকারিক ও বনদপ্তরের কর্মীরা৷ দুটি হাতির মধ্যে একটি দাঁতাল ও একটি মাকনা হাতি রয়েছে৷ বনদপ্তরের অনুমান স্থানীয় বৈকুন্ঠপুরের জঙ্গল থেকে খাবারের সন্ধ্যানে হাতিদুটি কোলালয়ে এসেছে৷ সারা দিন অপেক্ষার পর সন্ধে নামতেই হাতি দুটিকে স্বাভাবিক প্রক্রিয়ায় জঙ্গলে ফেরানোর চেষ্টা করবে বনদপ্তরের কর্মীরা৷ সেটা না হলে পরবর্তীতে হাতি দুটিকে ঘুমপাড়ানি গুলি করে ট্যাঙ্কুলাইজ করার চিন্তাভাবনাও করছে বনদপ্তর৷ ইতিমধ্যে বনদপ্তরের ঐরাবত নামক অত্যাধুনিক একটি গাড়ি আনা হচ্ছে ঘটনাস্থলে এই গাড়ির সাহায্যে হাতি দুটিকে জঙ্গলে ফেরানোর চেষ্টা করা হবে বলে জানিয়েছেন অনারিয়াম ওয়াইল্ড লাইফ ওয়ার্ডেন সীমা চৌধুরী।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here