প্রাতঃভ্রমনে বেড়িয়ে সিউড়িতে লরির ধাক্কায় মৃত দুই কিশোর, জখম ১

আশিস মণ্ডল, বীরভূম, ১১ অক্টোবর: প্রাতঃভ্রমনে বেড়িয়ে লরির ধাক্কায় মৃত্যু হল দুই কিশোরের। জখম আরও এক কিশোরকে আশঙ্কাজনক অবস্থায় কলকাতার একটি বেসরকারি নার্সিংহোমে ভর্তি করা হয়েছে। এই ঘটনায় বিভিন্ন দাবি দাওয়া নিয়ে ১০ ঘণ্টা সিউড়ি-আমোদপুর রাস্তা অবরোধ করে আদিবাসীরা। পরে পুলিশি আশ্বাসে অবরোধ উঠে যায়।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, মৃত দুই ছাত্রের নাম রাজেশ টুডু (১৭) ও মনোজ হেমরম (১৬)। তাদের বাড়ি সাঁইথিয়া থানার ধোবাজোল গ্রামে। প্রতিদিনের মতো এদিনও তিন কিশোর গ্রামের পাশ দিয়ে যাওয়া রাস্তার ধার দিয়ে প্রাতঃভ্রমণ করছিল। সেই সময় সিউড়ি থেকে আমোদপুরগামী একটি লরি বেপরোয়া ভাবে চালাতে গিয়ে তাদের পিষে দিয়ে পালিয়ে যায়। ঘটনাস্থলেই দুই কিশোরের মৃত্যু হয়। জখম রহিত বেসরা (১৩) কে আশঙ্কাজনক অবস্থায় প্রথমে সিউড়ি সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখান থেকে বর্ধমান মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল হয়ে একটি বেসরকারি নার্সিংহোমে ভর্তি করা হয়েছে। এই ঘটনার পরেই রাস্তায় ত্রিপল খাটিয়ে অবরোধ শুরু করে আদিবাসীরা। নেতৃত্ব দেন বীরভূম আদিবাসী উন্নয়ন গাঁওতার কর্ণধার রবিন সরেন।

গ্রামের বাসিন্দা বিজয় মুর্মু, অলোক বেসরারা বলেন, “এই রাস্তায় স্পিডবেকার না থাকায় সমস্ত গাড়ি বেপরোয়া ভাবে চলাচল করে। তাই আমাদের দাবি রাস্তায় বাম্পার বা স্পিডবেকার দিতে হবে। মৃতদের পরিবারকে উপযুক্ত ক্ষতিপূরণ দিতে হবে। আহত রহিতের চিকিৎসার খরচ প্রশাসনকে দিতে হবে। সেই সঙ্গে লরিটিকে আটক করে চালককে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দিতে হবে। প্রায় ১০ ঘণ্টা অবরোধ চলার পর ডিএসপি ডিএনটি অয়ন সাধুর আশ্বাসে অবরোধ উঠে যায়।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here