দীর্ঘ লড়াইয়ের পর মাঝরাতে উদ্ধার খুনির হাতে পণবন্দী ২০ শিশু, খতম অপহরণকারী

5

আমাদের ভারত,৩১ জানুয়ারি: দীর্ঘ উৎকণ্ঠার অবসান হলো শেষপর্যন্ত। মাঝরাতে উত্তরপ্রদেশের ফারুখাবাদে খুনির হাত পণবন্দি থাকা ২০টি শিশুকে উদ্ধার করল কমান্ডো বাহিনী। প্রতিটি শিশুই অক্ষত রয়েছে বলে জানা গেছে। অভিযান চলার সময় নিরাপত্তা বাহিনীর গুলিতে অপহরণকারী ওই যুবক সুভাষ বথামের মৃত্যু হয়েছে বলে জানান রাজ্য পুলিশের আইজি (কানপুর) মহিত আগারওয়াল।

সুভাষ বথাম এদিন নিজের মেয়ের জন্মদিনের পার্টিতে নিমন্ত্রণ করেছিলেন স্থানীয় কুড়িটি শিশু সহ কয়েকজন মহিলাকে। আর নেমন্তন্ন রক্ষা করতে এসে বৃহস্পতিবার দুপুর থেকে পণবন্দি হয়ে যান ওই শিশু ও মহিলারা। সুভাষ বথামের বিরুদ্ধে আগেই খুনের অভিযোগ ছিল। দীর্ঘক্ষন পেরিয়ে যাওয়ার পরেও ওই শিশু ও মহিলারা বাড়ি না ফেরায় গ্রামের কয়েকজন পুরুষ সেই বাড়িতে গিয়েছিলেন। গ্রামের মানুষকে দেখে বাড়ির জানালা দিয়ে বোমা ছুড়তে শুরু করে ওই অভিযুক্ত। ভয়ে সেখান থেকে পালিয়ে তারা পুলিশের কাছে যায় সাহায্যের জন্য।

শিশু ও মহিলাদের উদ্ধার করতে গিয়ে আক্রান্ত হয় পুলিশ। পুলিশকেও লক্ষ্য করে বোমা ছোড়ে। ওই অপহরণকারী যুবক। এরপর ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয় বিশেষ প্রশিক্ষিত কমান্ডো বাহিনী। শুরু হয় সমঝোতা। সুভাষ বথাম জানান তার কাছে ৩০ কিলো বিস্ফোরক রয়েছে।

পরিস্থিতি জানতে পেরে রাতেই নিজের বাসভবনে বৈঠক ডাকেন উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ। বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন প্রশাসনের শীর্ষ আধিকারিকরা। ঘটনার উপর নজরদারি করছিলেন আইজি (কানপুর)। এরপর উদ্ধারকাজে এক বিশেষ কমান্ডো বাহিনীকে ডেকে পাঠানো হয় ফারুখাবাদে। দীর্ঘ কয়েক ঘন্টার অভিযানে মেলে সাফল্য। শেষপর্যন্ত অপহরণকারীকে খতম করে উদ্ধার হয় পণবন্দি শিশুরা।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here