পশ্চিম মেদিনীপুরে দুঃস্থদের পাশে বিভিন্ন সংস্থা ও ব্যক্তি 

আমাদের ভারত, মেদিনীপুর, ২৫ মে: খড়গপুর ১ নম্বর ব্লকের বাসিন্দা শিক্ষক সুমন কল্যাণ ধাড়া সোমবার পবিত্র ইদের দিন তার বেলুড় ও নরেন্দ্রপুর রামকৃষ্ণ মিশনের  প্রাক্তনী এবং অধ্যাপক ও সম মনোভাবপন্ন মানুষদের সাহায্যকে একত্রিত করে দুঃস্থ মানুষদের পাশে  দাঁড়িয়েছেন।

সোমবার খড়্গপুরের পৃথিমপুর, বহড়াপাট, আশাপুর, কুশমাবাগ, কামারপাড়া ও গোকুলপুর গ্রামের সর্বমোট ২২৫ টি দুঃস্থ, আদিবাসী ও মুসলিম বিধবাদের হাতে ১২টি করে নিত্য প্রয়োজনীয় সামগ্রী তুলে দিয়েছেন। তার আবেদনে এদিন মেদিনীপুর হোমিওপ্যাথি মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের অধ্যক্ষ শ্রীমন্ত সাহার উপস্থিতিতে করোনা প্রতিরোধক আর্সেনিক এলবাম-৩০ বিতরণ করেন। সুমনবাবু এর আগে ব্যক্তিগতভাবে ৫৪টি আদিবাসী পরিবারকে লকডাউন চলাকালীন সাহায্য করেছিলেন ও তার পরিচিতদের সহযোগিতায় ১মে আন্তর্জাতিক শ্রমিক দিবসের দিন ১২টি নিত্য প্রয়োজনীয় জিনিস দিয়ে ৮৮টি আদিবাসী পরিবারের পাশে দাঁড়িয়েছিলেন।

সোমবার পশ্চিম মেদিনীপুর জেলার জঙ্গলমহলের  শালবনী ব্লকে ঝড় বিধ্বস্ত এলাকার মানুষদের হাতে খাদ্য সামগ্রী তুলে দেওয়া হয়েছে। এদিন বিশেষ করে ৬নং ভীমপুর অঞ্চলের আমফান বিপর্যস্ত ৫০০টি পরিবারের হাতে মন্ত্রী শুভেন্দু অধিকারীর পাঠানো চাল, চিড়া, মুড়ি, বিস্কুট, চানাচুর ইত্যাদি খাদ্য সমগ্রী বিতরণ করা হয়েছে। শালবনি ব্লকের অন্যান্য ক্ষতিগ্রস্ত এলাকাগুলোতেও আগামী কয়েকদিন ধরে এই ত্রাণ সামগ্রী বিতরণ করা হবে।

অন্যদিকে, মেদিনীপুর শহরের ১৫ নম্বর ওয়ার্ডের পালবাড়ি এলাকায় আমফান ঝড়ে নদীর পাড়ের যে সব মানুষদের কাঁচাবাড়ি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে তাদের ভারতীয় জনতা পার্টির পক্ষ থেকে ত্রিপল দেওয়া হয়েছে উপস্থিত ছিলেন জেলা সভাপতি শমিত দাস, অরূপ দাস, মিলন মাইতি ও অন্যান্য সদস্যরা।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here