লকডাউনে পশ্চিম মেদিনীপুর জেলা জুড়ে বিভিন্ন কর্মসূচি

আমাদের ভারত, পশ্চিম মেদিনীপুর, ৩০ মার্চ: বিভিন্ন দল ও সংগঠনের পক্ষ থেকে সোমবার পশ্চিম মেদিনীপুর জেলার বিভিন্ন জায়গায় সাধারণ মানুষের পাশে দাঁড়িয়ে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ করা হয়েছে। সেই সঙ্গে করোনা প্রতিরোধক বিভিন্ন সচেতনতামূলক পরিষেবা দেওয়া হয়েছে। এদিন পিংলা বিধানসভা এলাকার দুহাজার জন মানুষকে চাল ডাল, আলু, পেঁয়াজ, মিলিয়ে মোট ৫ কেজি খাদ্যদ্রব্য এবং সাবান বিতরণ করা হয়েছে। পিংলা বিধানসভার অন্তর্গত খড়গপুর ২ নং ব্লকের মাদপুর তৃণমূল পার্টি অফিস থেকে এইসব বিতরণ করা হয়। 

অন্যদিকে মেদিনীপুর শহরে বারো নম্বর ওয়ার্ডের প্রাক্তন কাউন্সিলর টোটন সাসপল্লির নেতৃত্বে এলাকার সাতশো পরিবারকে চাল আলু পৌঁছে দেওয়া হয়েছে। ওই প্রাক্তন কাউন্সিলর জানান, এখন রাজনীতি করার সময় নয়, সাধারণ মানুষের পাশে মানুষ হিসাবে দাঁড়ানোর দরকার আছে। তার সঙ্গে ছিলেন অনাথ বেয়ারা। এদিন ১১ নম্বর ওয়ার্ডের বেহারা পাড়ায় প্রায় ২০০ জন মানুষের হাতে খাদ্য সামগ্রী তুলে দিয়েছেন শহরের অন্যতম সমাজসেবী কাঞ্চন খান। সোমবার সকালে মেদিনীপুর শহরের সিপাহী বাজার এলাকায় একটি রেশন দোকান থেকে প্রায় সাড়ে তিন কুইন্ট্যাল গম পাচার হওয়ার অভিযোগ ওঠে। সেই সময় এলাকার লোক হাতেনাতে ধরে বলে খবর। এলাকার লোকের অভিযোগ, দীর্ঘদিন ধরেই এভাবে রেশন দ্রব্য পাচার হয়ে যেত এবং লোক নিয়মিত রেশন দ্রব্য পেতেন না। এলাকার বাসিন্দারা রেশন দ্রব্য আটকে দীর্ঘক্ষণ বিক্ষোভ দেখান।

করোনা ভাইরাসের কারণে দেশজুড়ে লকডাউন চলায় মধ্যবিত্ত ও খেটে খাওয়া মানুষের পাশে দাঁড়ালো পশ্চিম মেদিনীপুরের ২৩ নাম্বার ওয়ার্ডের যুব সম্প্রদায়। তারা তাদের সাধ্যমত ডোনেশন করে কিছু পরিবারের হাতে চাল,ডাল ও খাদ্য সামগ্রী তুলে দেয়। তাদের পাশে দাঁড়ানোর জন্য এলাকার গরিব মানুষ তাদের আশীর্বাদ করেন। সোমবার সকালে সবং ব্লকের দশ নম্বর ভেমুয়া অঞ্চলে  প্রায় সাড়ে তিনশো জন মানুষের হাতে চাল, ডাল, আলু তুলে দেওয়া হয়। উপস্থিত ছিলেন সাংসদ মানস ভুঁইঞা, বিধায়ক গীতা ভুঁইয়া, কর্মাধ্যক্ষ আবু কালাম বক্স ,পঞ্চায়েত প্রধান তরুণ মিশ্র ও অন্যান্যরা।

তৃণমূলের পশ্চিম মেদিনীপুর জেলা সভাপতি অজিত মাইতির উদ্যোগে মেদিনীপুর শহরে এবং জেলার বেশকিছু প্রত্যন্ত এলাকার গ্রামগুলিতে চাল, ডাল, আলু বিতরণ করা হয়েছে।

নিজেদের বানানো স্যানেটাইজার গরীব মানুষদের দেওয়ার জন্য পুলিশ প্রশাসনের হাতে তুলে দিয়েছে একটি সংগঠনের যুব কর্মীরা। মেদিনীপুর শহরবাসীর দিকে সার্বিক নজর রেখে চলেছেন পুলিশ কর্মীরা। রোদে দাঁড়িয়ে, শহরের এপ্রান্ত থেকে ওপ্রান্ত টহল দিয়ে অক্লান্ত পরিশ্রম করে চলেছেন তাই তাদের হাতে বোতল তুলে দিয়ে পুলিশকর্মীদের কুর্নিশ জানিয়েছে যুব কর্মীরা। 

ভারতীয় জনতা পার্টি পূর্ব ঘোষিত কর্মসূচি অনুযায়ী দেশের এই সংকট কালীন পরিস্থিতিতে সাধারণ দরিদ্র মানুষের পাশে থাকার বার্তা নিয়ে সোমবার ডেবরা বিধানসভার বালিচকে সাধারণ মানুষদের প্রয়োজনীয় দ্রব্য দিয়ে সাহায্য করেন। এদিন করোনা সচেতনতা অভিযানে শামিল হন দলের কর্মীরা।

 
এদিন গড়বেতা বিধানসভার অন্তর্গত তিন নম্বর বড়মুড়া গ্রাম পঞ্চায়েত এলাকার কয়েকশো বাসিন্দাকে নিজের হাতে মাস্ক পরিয়ে সাহায্য ও করনা ভাইরাসের থেকে  সুরক্ষিত রাখার জন্য এলাকাবাসীকে সচেতন করলেন গড়বেতা বিধানসভার সম্মানীয় বিধায়ক আশীষ চক্রবর্তী এবং গড়বেতা ১নম্বর  পঞ্চায়েত সমিতির সহ-সভাপতি সেবাব্রত ঘোষ।  পঞ্চায়েতের পক্ষ থেকে  এদিন মুখ্যমন্ত্রীর ত্রাণ তহবিলে কিছু আর্থিক সহযোগিতার জন্য চেক তুলে দেওয়া হয়।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here