জেএনইউ’য়ের পাশে বিদ্যাসাগর বিশ্ববিদ্যালয়

আমাদের ভারত, ২৭ নভেম্বর: জহরলাল নেহেরু বিশ্ববিদ্যালয়ের ফি বৃদ্ধি বিরোধী আন্দোলনের পাশে দাঁড়াল বিদ্যাসাগর বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রছাত্রীরা।
বুধবার বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে একটি প্রতিবাদী মিছিল করেন গবেষক ও সাধারণ ছাত্রছাত্রীরা। নেতৃত্ব দেন রাকিবুল হাসান, গৌতম বর্মন, তাপস জানা, জয়দেব পাত্র, সৌমিত্র মাইতি প্রমুখ। শিক্ষায় বেসরকারিকরণ, বাণিজ্যিকীকরণের বিরুদ্ধতা সহ শিক্ষান্তে স্থায়ী কাজ, ছাত্রীদের নিরাপত্তা ও বিশ্ববিদ্যালয় ক্যান্টিনে খাদ্যের গুণগত মান অক্ষুন্ন রেখে সুলভ মূল্যে খাদ্য সরবরাহের দাবি জানানো হয়।

রাকিবুল হাসান বলেন, “শিক্ষা একটি মৌলিক অধিকার। শিক্ষায় ফি বাড়ানো মানেই হল সেই মৌলিক অধিকার খর্ব করা, সংবিধান অমান্য করা। তাই জেএনইউ’য়ের ছাত্র আন্দোলন সমর্থনের পাশাপাশি শিক্ষায় ফি বৃদ্ধি ও বেসরকারিকরণের বিরোধিতা করছি।”

তাপস জানা বলেন “স্বাধীনতা আন্দোলনে নেতাজি সহ সমস্ত বিপ্লবীদের অন্যতম প্রধান দাবি ছিল অবৈতনিক শিক্ষার। কিন্তু স্বাধীনতার পরে দিন যত গড়িয়েছে শিক্ষা হয়েছে ব্যয়বহুল অন্যদিকে নেতামন্ত্রীদের জন্য বেড়েছে সরকারি বরাদ্দ। তাই নেতা মন্ত্রীর বরাদ্দ, পুঁজিপতিদের কোটি কোটি টাকা ছাড় না দিয়ে শিক্ষায় ব্যয় বাড়ানো হোক।”

সম্প্রতি বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্যান্টিনে খাদ্যের দাম বাড়ানোর বিরোধিতা করে অপর আন্দোলনকারী সৌমিত্র মাইতি, বুদ্ধদেব দে বলেন, “সংসদে নেতা মন্ত্রীদের অত্যন্ত সুলভ মূল্যে খাদ্য দেওয়া হয়, আর দেশের ভবিষ্যৎ যারা সেই ছাত্রছাত্রীদের জন্য বিশ্ববিদ্যালয় ক্যান্টিনে সেই সুযোগ নেই কেন? আমাদের বিশ্ববিদ্যালয়ে অসংখ্য দরিদ্র পরিবারের ছেলেমেয়েরা পড়াশোনা করে। তাই এখানকার ক্যান্টিন তুলনামূলকভাবে সুলভ হোক।”

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here