বাইকের ধাক্কায় এক ব্যাক্তির মৃত্যুর অভিযোগে গ্রেপ্তার হলেও কোর্ট থেকে জামিন, উত্তেজিত জনতার পথ অবরোধ ও অভিযুক্তের বাড়ি ভাঙ্গচুর

স্নেহাশিস মুখার্জি, আমাদের ভারত, নদিয়া, ৪ জানুয়ারি: নেশাগ্রস্ত অবস্থায় বাইক চালাতে গিয়ে ধাক্কা মেরে এক ব্যক্তিকে মেরে ফেলার অভিযোগ, অভিযুক্তকে গ্রেফতার করলেও কোর্ট থেকে জামিন পেয়ে যাওয়ায় পুলিশের ওপর ক্ষোভ প্রকাশ করে উত্তেজিত জনতা প্রথমে রাজ্য সড়ক অবরোধ করে।পরে অভিযুক্তের বাড়ি ভাঙ্গচুর করে আগুন লাগিয়ে দেয়। ঘটনাটি ঘটেছে নদিয়ার ধানতলার আরংঘাটা ফাঁড়ি এলাকায়।

সূত্রের খবর, গত ৩১শে ডিসেম্বর নদিয়ার ধানতলা থানার আরংঘাটা এলাকার বাসিন্দা প্রবীর ঘোষ, বয়স ৫৩, চায়ের দোকান থেকে বাইকে করে বাড়ির উদ্দেশ্যে রওনা হচ্ছিলেন। অভিযোগ সেই সময় উল্টো দিক থেকে সনু বিশ্বাস নামে এক যুবক দ্রুতগতিতে বাইকে চালিয়ে সজোরে ধাক্কা মারে প্রবীর ঘোষের বাইকে। ঘটনাস্থলে ছিটকে পড়ে প্রবীর ঘোষ। স্থানীয়রা তড়িঘড়ি তাকে প্রথমে রানাঘাটের একটি বেসরকারি নার্সিংহোমে ভর্তি করে। অবস্থার অবনতি দেখে সেখান থেকে তাকে কলকাতা পিজি হাসপাতালে স্থানান্তরিত করা হয়। ঘটনার পরের দিন পিজি হাসপাতালে তার মৃত্যু হয়। ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে প্রবীর ঘোষের পরিবারের তরফ থেকে থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করা হয় অভিযুক্তের বিরুদ্ধে।

অভিযোগ পুলিশ তদন্তে নেমে সনু বিশ্বাসকে গ্রেফতার করে রানাঘাট মহকুমা আদালতে তোলে। কিন্তু আদালত থেকে সে জামিনে মুক্তি পায়। এই খবর এলাকায় পৌছতেই উত্তেজনা ছড়ায় এলাকায়। স্থানীয়দের অভিযোগ, এত বড় একটি নৃশংস ঘটনায় কিভাবে দিনের দিন জামিন পেল অভিযুক্ত? পুলিশের ওপর ক্ষোভ প্রকাশ করে শনিবার সকালে প্রথমে স্থানীয় বাসিন্দারা আরংঘাটা রাজ্য সড়ক অবরোধ করে এবং পরে অভিযুক্তের বাড়ি ভাঙ্গচুর করে আগুন জ্বালিয়ে দেয়।

স্থানীয় বাসিন্দাদের দাবি, এই প্রথম নয় সনু বিশ্বাসের বিরুদ্ধে এর আগেও কয়েকটি অভিযোগ রয়েছে থানায়। তাদের দাবি, যত দ্রুত সম্ভব সঠিক তদন্ত করে অভিযুক্ত সনু বিশ্বাসকে কঠোরতম শাস্তি দিতে হবে।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here