কেন্দ্রের বঞ্চনা নিয়ে ‘সোজা বাংলায় বলছি’-তে ফের ভার্চুয়াল ঝড় ডেরেক ও ব্রায়েনের

রাজেন রায়, কলকাতা, ২ আগস্ট: করোনা আবহে একদিকে মানুষের বাঁচা-মরার লড়াইয়ে পাশে থাকার চেষ্টা করছে রাজ্য প্রশাসন। তার মধ্যে ২০২১ বিধানসভা ভোটের লক্ষ্যে রাজ্যের সমস্ত আসন সুরক্ষিত করতে রাজ্য সরকারের সুশাসন ও কেন্দ্রের বঞ্চনার ফিরিস্তি নিয়ে জোরদার প্রচারে নামতে চাইছে শাসক শিবির। তাই ‘সোজা বাংলায় বলছি’ চতুর্থ পর্বে ফের কেন্দ্রের বিরুদ্ধে আমফান ও করোনার টাকা নিয়ে অসহযোগিতার অভিযোগে ভার্চুয়াল ঝড় তুললেন তৃণমূলের কেন্দ্রীয় মুখপাত্র তথা রাজ্যসভার সাংসদ ডেরেক ও’ব্রায়েন। ফের একবার ভারতের বেকারত্বের হারের তুলনায় রাজ্যের বেকারত্বের হার কতটা কম সেই পরিসংখ্যানও তুলে ধরেন।

তৃণমূলের ভার্চুয়াল প্রচারের চতুর্থ পর্বে ডেরেক বলেন, ‘শুধু অতিমারী নয়, বঙ্গ ক্ষতিগ্রস্ত বিধ্বংসী ঘূর্ণিঝড় আমফানে। এই বিধ্বংসী ঝড়ে মোট ৮ লক্ষ ২ হাজার কোটি টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। তার মধ্যে কেন্দ্র দিয়েছে মাত্র ১ হাজার কোটি টাকা।’

এর আগে বুধবার দ্বিতীয় পর্বে তুলে ধরা হয়েছিল, কোন কোন খাতে কেন্দ্রের কাছে কত টাকা পায় রাজ্য। শুক্রবার তৃতীয় দিনের এক মিনিটের ভিডিও’তে ডেরেক ও ব্রায়েন অভিযোগ করে বলেন, কোভিড মোকাবিলায় কেন্দ্রের বঞ্চনার শিকার হয়েছে রাজ্য।

গত ২৬ জুলাই থেকে শুরু হয়েছে তৃণমূল কংগ্রেসের নয়া মেগা ক্যাম্পেন “সোজা বাংলায় বলছি”। সপ্তাহে তিনদিন “সোজা বাংলায় বলছি” নামে নতুন ভিডিও সিরিজ প্রকাশিত হচ্ছে। প্রতি বুধ, শুক্র ও রবিবার সকাল
১১টায় প্রকাশ করা হচ্ছে একটি করে এক মিনিটের ভিডিও। সোশ্যাল মিডিয়ায় এই সিরিজ চলবে আগামী কয়েকমাস। চলতি সপ্তাহে রবিবার ছিল এই সিরিজের চতুর্থ পর্বের ভিডিও প্রকাশের দিন। এই ভিডিওগুলি সমসাময়িক, সামাজিক, রাজনৈতিক এবং অর্থনৈতিক বিষয়ের প্রাসঙ্গিক ক্ষেত্রগুলির ওপর তৈরি করা হবে বলেই দলীয় সূত্রে খবর। এই ভিডিওগুলিতে দেখানো হচ্ছে বিভিন্ন ক্ষেত্রে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের নেতৃত্বে গত ন’বছরে বাংলা কতটা অগ্রগতি করেছে এবং একই সঙ্গে কি ভাবে কেন্দ্রের বঞ্চনার শিকার হয়েছে। এভাবে বিরোধী দলকে বিধানসভা ভোটের প্রচারে কয়েক যোজন পিছিয়ে ফেলতে চায় শাসকদল তৃণমূল।

আপনাদের মতামত জানান

Please enter your comment!
Please enter your name here