বাজতে পারে যুদ্ধের দামামা

বাজতে পারে যুদ্ধের দামামা

আমাদের ভারত ডেস্ক,২০ জুলাই:আফ্রিকার কাছে জিব্রাল্টার প্রণালীতে ইরানের জাহাজকে আটক করেছিল ব্রিটেন। তারপরই পারস্য উপসাগরে হরমুজ প্রণালীতে ব্রিটিশ তেলবাহী ট্যাংকার আটক করেছে ইরান। আর এর ফলেই যুদ্ধের কালো মেঘ ঘনিয়েছে। আন্তর্জাতিক সংবাদ মাধ্যম সূত্রে খবর ইরানের এই পদক্ষেপের চরম হুঁশিয়ারি দিয়েছে ব্রিটেন।

পারস্য উপসাগর থেকে আটক করা তেলের ট্যাঙ্কার না ছাড়লে ইরানকে কঠিন পরিণতি ভোগ করতে হবে বলে হুঁশিয়ারি দিয়েছে ব্রিটেন। জানা গেছে ওই ট্যাঙ্কারে ২৩ জন স্ক্রু থাকলেও তারা একজনও ব্রিটিশ নাগরিক নয়। যদিও পরিস্থিতি স্বাভাবিক করতে উভয় দেশের মধ্যে কূটনৈতিক প্রক্রিয়া চলছে।

এর আগে মার্কিন ড্রোনের গতিবিধি আটকাতে সেগুলিকে উড়িয়ে দিয়েছিল ইরানি সেনা। আর তারপরই ইরানকে চাপে রাখতে সৌদিতে হাজার হাজার মার্কিন সেনা পাঠাচ্ছে আমেরিকা। আন্তর্জাতিক সংবাদ মাধ্যমের খবর অনুযায়ী আপাতত সৌদির প্রত্যন্ত মরুভূমিতে তৈরি হবে মার্কিন সেনা ছাউনি।এরইমধ্যে পারস্য উপসাগরে সৌদি আরব ও সংযুক্ত আরব আমিরশাহী জাহাজে কমান্ডো অভিযানে পরিস্থিতি গরম হয়ে ওঠে।আরব দেশগুলির অভিযোগ এই হামলায় জড়িত ইরান। তারপরেই মার্কিন নৌ-বহর উপসাগরের সব থেকে জটিল অর্থনৈতিক অঞ্চল হরমুজ প্রণালীতে এগিয়ে যায়। এর জেরে ইরান আমেরিকার সম্পর্ক অবনতি হয়েছে। ইরানও ক্রমাগত হুমকি দিয়ে চলেছিল। এরপরই মার্কিন লবির দেশ বৃটেনে একটি জাহাজকে আটক করে ইরান। ফলে যুদ্ধের কালো মেঘ ঘনিয়েছে বলে মনে করছে আন্তর্জাতিক বিশ্লেষকরা। ইরান পাল্টা হুঁশিয়ারি দিয়ে বলেছে, বিরোধী পক্ষে যদি একটা গুলি চলে তাহলে বিশ্বের তেল অর্থনীতি বিপর্যস্ত করা হবে। তার ধাক্কা সামলাতে হবে মার্কিন ও ব্রিটিশ লবির বন্ধু দেশগুলিকেও।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

nineteen − 8 =